‘পদ্মা সেতু ও পায়রা বন্দর দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জীবনমান উন্নত করেছে’
‘পদ্মা সেতু ও পায়রা বন্দর দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জীবনমান উন্নত করেছে’

সংগৃহীত ছবি

‘পদ্মা সেতু ও পায়রা বন্দর দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জীবনমান উন্নত করেছে’

ঝালকাঠি প্রতিনিধি

করোনার ও ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের ধাক্কা শেষ হয়ে গেলে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ পদ্মা সেতু ও পায়রা বন্দরের সুফল ভোগ করতে পারবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি।  

তিনি বলেন, পদ্মা সেতু ও পায়রা বন্দরের কারণে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন হয়েছে। এখানে বিনিয়োগ বেড়েছে। শিল্প কল কারখানা হবে।

এতে অসংখ্য মানুষের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। জমির মূল্য আগের চেয়ে অনেক বৃদ্ধি পাবে। ফলে এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হবে।  

শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝালকাঠি পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শহরের কৃষ্ণকাঠি পেট্রোলপাম্প মোড়ে তিন নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলের কার্যালয় উদ্বোধন শেষে সেখানেই এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর এসএম আল আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, পৌর মেয়র মো. লিয়াকত আলী তালুকদার ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান আরিফুর রহমান।  

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক তরুন কর্মকার, সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিল, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রেজাউল করিম জাকির, যুবলীগ নেতা কামাল শরীফ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম শফিক ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম পারভেজ।

news24bd.tv/আজিজ

এই বিভাগের পাঠকপ্রিয়