ইন্দোনেশিয়ায় পদদলিত হয়ে নিহত ২শ’ ছাড়িয়েছে 
ইন্দোনেশিয়ায় পদদলিত হয়ে নিহত ২শ’ ছাড়িয়েছে 

ইন্দোনেশিয়ায় পদদলিত হয়ে নিহত ২শ’ ছাড়িয়েছে 

মাসুদ রানা

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল খেলা নিয়ে পদদলিত হয়ে নিহতের সংখ্যা ২শ’ ছাড়িয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম। আহত হয় প্রায় ১৮০ জন। ম্যাচ শেষে সমর্থকেদের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ার পর পদদলিত হয়ে প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে।

এদিকে এ ঘটনাকে ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল ইতিহাসে ট্র্যাজেডি হিসেবে আখ্যা দিয়ে দ্রুত তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো।

ফুটবলের ইতিহাসে হৃদয়বিদারক এক ঘটনার সাক্ষী হলো ইন্দোনেশিয়া। শনিবার রাতে আরেমা এফসি ও পেরসেবায়া ফুটবল ক্লাবের মধ্যে খেলা চলছিল। তবে ম্যাচটি ৩-২ গোলে জেতে পারসেবায়া। দুই দশকের বেশি সময় পর পারসেবায়ার কাছে হারায় আরেমার সমর্থকেরা ক্ষুব্ধ হয়ে মাঠে ঢুকে পড়েন।

শুরু হয় ঘটনার সূত্রপাত।

সমর্থকরা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে থাকলে এক পর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য পুলিশ কাঁদুনে গ্যাস ছোড়ে। তাতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এবং হুড়োহুড়ি শুরু হয়। চরম বিশৃঙ্খলার মধ্যে পদদলিত এবং শ্বাসরুদ্ধ হয়ে হতাহতের ঘটনা ঘটে। পুলিশ প্রধানের দাবি, বাধ্য হয়েই তারা কাঁদুনে গ্যাস ছোড়ে।

ফিফার নিরাপত্তা আইন অনুযায়ী, মাঠে নিরাপত্তাকর্মীরা কখনোই আগ্নেয়াস্ত্র কিংবা ‘দর্শক নিয়ন্ত্রণে গ্যাস’ ব্যবহার করতে পারেন না যা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। হতাহতের ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে, মাঠের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে দেশটির প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো।

ফুটবল ইতিহাসের এমন ট্র্যাজেডিতে আমি গভীর সমবেদনা জানাই, ক্রীড়া মন্ত্রী এবং পুলিশ প্রধানের পাশাপাশি ইন্দো ফুটবলকে ঘটনার তদন্তের  নির্দেশ দিচ্ছি।

এ ঘটনায় ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল লিগ এক সপ্তাহের জন্য স্থগিত করা হয়েছে এবং আরেমাকে বাকি মৌসুমের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

news24bd.tv/তৌহিদ