স্ত্রী দেখা না করায় গায়ে আগুন দিয়ে প্রবাসীর আত্মহত্যা
স্ত্রী দেখা না করায় গায়ে আগুন দিয়ে প্রবাসীর আত্মহত্যা

সংগৃহীত ছবি

স্ত্রী দেখা না করায় গায়ে আগুন দিয়ে প্রবাসীর আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে হানিফ (৪৫) নামে এক ইতালি প্রবাসী আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার তার মৃত্যু হয়।

এর আগে রোববার রাতে ফতুল্লার পঞ্চবটির ব্যাংক কলোনিতে তিনি নিজের গায়ে আগুন দেন। পরে গুরুতর দগ্ধ অবস্থায় তাকে ঢাকায় নেওয়া হয়েছিল।

হানিফ মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কাজির পাগলা এলাকার জয়নাল শেখের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফতুল্লার পঞ্চবটির ব্যাংক কলোনির মোসলেহ উদ্দিনের মেয়ে তানিয়া আক্তারকে ১৪ বছর আগে বিয়ে করেন হানিফ। তাদের সংসারে ৭ বছর বয়সি একটি ছেলেসন্তান আছে। বিয়ের পর হানিফ ইতালি চলে যান।

স্ত্রী থাকেন বাবার বাড়িতে। দেড় বছর আগে ইতালি থেকে দেশে ফেরেন তিনি। দেশে ফেরার পর এই দীর্ঘ সময়ে তার স্ত্রীর সঙ্গে দেখা হয়নি। শ্বশুরবাড়িতে গেলেই স্ত্রী সটকে পড়তেন, তার সঙ্গে দেখা করতেন না।

একপর্যায়ে সেখান থেকে ছেলেকে নিজের কাছে নিয়ে আসতে চাইলে শ্বশুরবাড়ির লোকজন বাধা দেন। এ নিয়ে বিতণ্ডার জেরে শ্বশুরবাড়িতেই একটি ঘরে নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেন হানিফ।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে তার ভাই কামাল হোসেন বলেন, ‘আজ কিছুই বলব না, সময় হলে বলব। ’ বলে ফোন কেটে দেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ রিজাউল হক বলেন, এ বিষয়ে মামলা হবে। তারপর তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা।

news24bd.tv/আলী