প্রকাশ্য স্ত্রীর পরকীয়া , অপমানে স্বামীর আত্মহত্যা
প্রকাশ্য স্ত্রীর পরকীয়া , অপমানে স্বামীর আত্মহত্যা

প্রতীকী ছবি

প্রকাশ্য স্ত্রীর পরকীয়া , অপমানে স্বামীর আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লার তিতাস উপজেলায় স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে প্রবাসী এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার (৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়নের শাহবৃদ্ধি পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মোস্তাফা (৫০) উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়নের শাহবৃদ্ধি পশ্চিমপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার সন্ধ্যায় সবার অজান্তে নিজের বাড়ির পাশে ঝোপের একটি আমগাছে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে মোস্তফা।

মোস্তফা তার স্ত্রীর ওপর অভিমান করে আত্মহত্যা করেন। তার স্ত্রী এলাকার একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে পরকীয়ায় লিপ্ত ছিলেন।

তারা আরও জানান, মোস্তফার সামনেই প্রকাশ্যে স্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে ঘরে বিভিন্ন লোকের আসা-যাওয়া ছিল। যা নিয়ে সংসারের অশান্তি চলতো ও স্ত্রীকে মোস্তফা একাধিকবার নিষেধ করেন।

তবে তার নিষেধ অমান্য করে বেপরোয়া চলাচল ও পরকীয়ায় আশক্তি থাকায় বেশ কয়েকবার এলাকায় দেন-দরবারও হয়েছে।

নিহতের বোন মুবিয়া জানান, প্রায় ১৮ বছর ধরে প্রবাসে ছিলেন মোস্তফা, প্রবাস থেকে দেশে ফেরার পর থেকেই নিহতের স্ত্রী খারাপ আচরণ করতেন। বিদেশের কামাই, জমিজমা, বাড়িঘর নিজের নামে করে নিয়ে সংসারে রাজত্ব করতেন তিনি। প্রায়ই তার স্বামীকে ঘর থেকে বের করে দিয়ে বাইরে থেকে তালা আটকিয়ে নিরুদ্দেশ হয়ে যেতেন।

তিনি আরও জানান, পূর্বের ন্যায় সোমবারও তার বাড়িতে সালিস বসেছিল তার স্ত্রীর বেপরোয়াপনা রোধের জন্য। তবে সালিসে মোস্তফাকে স্ত্রীর লোকজন চরম অপমান করেন। তারপর পুনরায় বাইরে থেকে ঘরে তালা ঝুলিয়ে নিরুদ্দেশ হয়ে যায় স্ত্রী। নিহত মোস্তফা সোমবার দুপুর থেকে সারা বিকেল খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে চরম অপমানের গ্লানি ও পেটের খিদে নিয়ে আত্মহত্যা করেন।

এ বিষয়ে তিতাস থানার এসআই ইমরুল হক জানান, সোমবার রাতে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

news24bd.tv/আলী