অপহরণের অশ্লীল ভিডিও ধারণ: শাস্তির দাবি ভুক্তভোগীর মায়ের
অপহরণের অশ্লীল ভিডিও ধারণ: শাস্তির দাবি ভুক্তভোগীর মায়ের

প্রতীকী ছবি

অপহরণের অশ্লীল ভিডিও ধারণ: শাস্তির দাবি ভুক্তভোগীর মায়ের

নোয়াখালী প্রতিনিধি 

অপহরণের পর ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তির শাস্তির দাবি চেয়েছেন ভুক্তভোগীর মা। নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে মঙ্গলবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি ও মেয়ের নিরাপত্তার দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। বলেন, আমার স্বামী প্রবাসে থাকে।

একমাত্র মেয়ে কলেজে পড়ে। কলেজ থেকে আমার মেয়েকে তুলে নিয়ে যায় বসুরহাট পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের করালিয়া গ্রামের মৃত রুস্তম আলীর ছেলে মো. নুর আলম প্রকাশ। তারপর ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করছে সে।

ভুক্তভোগীর মা বলেন, অভিযুক্ত আরিফ ২০১৯ সাল থেকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল তার মেয়েকে এবং বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করত।

২০১৯ সালের ৯ জানুয়ারিতে কোম্পানীগঞ্জ থানায় অভিযোগ জমা দিলে আর বিরক্ত করবে না বলে ৩০০ টাকার স্টাম্পে স্বাক্ষর করে। কিন্তু গত ২৫মে তার মেয়েকে অপহরণ করে আরিফ।

মেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, আমার মেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে কয়েকবার। সামজিকভাবে আমরা হেয় হচ্ছি। আজ চার মাস পেরিয়ে গেলেও কোনো বিচার পেলাম না। আমি অপরাধীর সর্বোচ্চ শাস্তি চাই।

ভুক্তভোগী তরুণী বলেন, 'আমার ছোট ভাই ও মাকে অপহরণ করবে বলে আমাকে ভয় দেখায়। জোর করে কাগজে স্বাক্ষর নেয়। আমাকে ধর্ষণ করে এবং পিল খাওয়ায়। কিন্তু রিপোর্টে এসব আসেনি। আমি ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। '

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাদেকুর রহমান বলেন, মামলা তদান্তাধীন রয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আকরামুল হাসান বলেন, 'আইনের চোখে সবাই সমান। আমি মেয়ে ও তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছি। আগামীতে মেয়ের বাড়িতে গিয়ে তদন্ত করব'।

news24bd.tv/রিমু