ইডেনে শিক্ষার্থীদের অনৈতিক কাজে বাধ্য করার প্রমাণ মেলেনি: তদন্ত কমিটি
ইডেনে শিক্ষার্থীদের অনৈতিক কাজে বাধ্য করার প্রমাণ মেলেনি: তদন্ত কমিটি

সংগৃহীত ছবি

ইডেনে শিক্ষার্থীদের অনৈতিক কাজে বাধ্য করার প্রমাণ মেলেনি: তদন্ত কমিটি

ইডেন মহিলা কলেজের কোনো শিক্ষার্থীকে অনৈতিক কাজে বাধ্য করার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে তদন্ত কমিটি। তবে সিট বাণিজ্য ও সংঘর্ষের ঘটনাসহ অন্য অভিযোগের বিষয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) কলেজের অধ্যক্ষ সুপ্রিয়া ভট্টাচাৰ্যের স্বাক্ষর করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সম্প্রতি ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের নেত্রীরা ছাত্রীনিবাস ভাড়া দেওয়া ও ক্যাম্পাসে সংঘটিত বিশৃঙ্খলর ঘটনা তদন্তে কমিটি কলেজ কর্তৃপক্ষ।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর ৪ সদস্যের এ কমিটি করা হয়।  

কলেজের শিক্ষক অধ্যাপক মোহাম্মদ জিয়াউল হক, অধ্যাপক কাজী আতিকুজ্জামান, অধ্যাপক সুফিয়া আখতার ও অধ্যাপক মেহেরুন্নেসা মেরীর সমন্বয়ে এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

তদন্ত কমিটি কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার পর এ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। সেখানে বলা হয়, গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে ইডেন মহিলা কলেজ ক্যাম্পাসে সংঘটিত অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ও পরে অন্যান্য বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির ঘটনা এবং বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত কয়েকজন শিক্ষার্থীর বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটি করা হয়।

তদন্ত শেষে কমিটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, কোনো শিক্ষার্থীকে অনৈতিক কাজে বাধ্য করার অভিযোগের কোনো সত্যতা পায়নি তদন্ত কমিটি।  

তবে সিট বাণিজ্য ও সংঘর্ষের ঘটনাসহ অন্য অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।

উল্লেখ্য, গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে কলেজ ছাত্রলীগের সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসীকে মারধরের অভিযোগ ওঠে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রীভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার বিরুদ্ধে৷ এর প্রতিবাদে ওই দিন রাতেই ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেন ছাত্রলীগের একটি অংশের নেত্রীরা৷

news24bd.tv/হারুন