বন্দুক বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে কানাডা
বন্দুক বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে কানাডা

সংগৃহীত ছবি

বন্দুক বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে কানাডা

অনলাইন ডেস্ক

বন্দুক সহিংসতা কমানোর ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে কানাডা। এ লক্ষ্যে ৪০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কঠোর বন্দুক নিয়ন্ত্রক আইন পাস করেছে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো সরকার। এ আইনের ফলে এখন থেকে কানাডায় হ্যান্ডগান ক্রয়-বিক্রি বা স্থানান্তর নিষিদ্ধ হয়েছে।  

শুক্রবার ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার সারেতে এক সংবাদ সম্মেলনে বন্দুক সহিংসতার শিকার পরিবারের সদস্য এবং অন্যান্য আইনজীবীদের উপস্থিতিতে ট্রুডো বলেন, ‘আমরা এই দেশে হ্যান্ডগানের বাজার হিমায়িত করেছি।

আমরা লক্ষ্য করেছি বন্দুকের সহিংসতা বেড়েই চলেছে কাজেই আমাদের পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি হয়ে পড়েছিল। আজ থেকে আমাদের দেশে জাতীয়ভাবে হ্যান্ডগান নিষিদ্ধ কার্যকর হচ্ছে। ’

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অনুসারে, এই পদক্ষেপের ফলে দেশটির নাগরিকরা কানাডার মধ্যে হ্যান্ডগান কেনা, বিক্রি বা স্থানান্তর করতে পারবে না। এছাড়াও নতুন হ্যান্ডগান বানাতে বাধা সৃষ্টি করবে।

দেশটির জননিরাপত্তা মন্ত্রী মার্কো মেন্ডিসিনো এই সিদ্ধান্তকে কানাডায় বন্দুক সহিংসতা কমানোর ব্যাপারে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেছেন। তার মতে, কানাডিয়ানদের নিরাপদ রাখতে সাহায্য করবে এই আইনটি। কাজেই যত দ্রুত সম্ভব কার্যকর করতে হবে আইনটিকে।

তবে ট্রুডো সরকারের বিরুদ্ধে পাল্টা মত আলবার্টার বিচার মন্ত্রী টাইলার শানড্রোর। তার মতে এই পদক্ষেপটি আইন মেনে চলা আগ্নেয়াস্ত্র মালিকদের শাস্তি দিয়েছে।

‘ফেডারেল সরকারের আসল লক্ষ্য হ'ল হ্যান্ডগানের মালিকদের বলির পাঁঠা বানানো। এবং এই দেশে আইনি আগ্নেয়াস্ত্রের মালিকানা সম্পূর্ণরূপে বাদ দেওয়া। কানাডায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে কঠোর বন্দুক আইন রয়েছে, তবে কানাডিয়ানরা লাইসেন্স সহ আগ্নেয়াস্ত্রের মালিক হতে পারে। তবে তার মতে কিছু আগ্নেয়াস্ত্র নিবন্ধিত করা আবশ্যক। ’

news24bd.tv/আমিরুল

এই রকম আরও টপিক