নিখোঁজের পরদিন শিশুর লাশ উদ্ধার, পরিবারের দাবি ধর্ষণের পর হত্যা
নিখোঁজের পরদিন শিশুর লাশ উদ্ধার, পরিবারের দাবি ধর্ষণের পর হত্যা

সংগৃহীত ছবি

নিখোঁজের পরদিন শিশুর লাশ উদ্ধার, পরিবারের দাবি ধর্ষণের পর হত্যা

মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুর সদর উপজেলায় নিখোঁজের ১ দিন পর লামিয়া (১১) নামে এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ভুক্তভোগী পরিবারের দাবি তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে।  

বৃহস্পতিবার (২১ শুক্রবার ) রাত সাড়ে ১১টার দিকে সদর উপজেলা কালিকাপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের একটি ফসলি ক্ষেত থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ফসলি জমিতে শিশুটির মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা।

খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। নিহত লামিয়া কালিকাপুর ইউনিয়নের হোসেনাবাদ গ্রামের লোকমান ফকিরের মেয়ে।

পরিবার ও স্থানীয় ও সূত্রে জানা গেছে, নিহত লামিয়া গত বৃহস্পতিবার বিকেলে মাদারীপুর সদর উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের হোসনাবাদ নিজ এলাকা থেকে নানা বাড়ি চরনাচনা এলাকায় বেড়াতে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়। সারাদিন পার হওয়ার পরেও রাতে বাড়ি আর ফেরেনি সে।

বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে মেয়েকে না পেয়ে মাদারীপুর সদর থানায় জিডি করেন তার বাবা।

পরে শুক্রবার রাতে লামিয়ার মরদেহ কালিকাপুর ইউনিয়ন এলাকায় একটি ফসলের ক্ষেতে দেখতে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করে।

নিহত লামিয়ার বাবা লোকমান ফকির বলেন, আমার মেয়েকে কিছু বখাটে ছেলেরা ধর্ষণ শেষে হত্যা করেছে, আমি এর কঠিন শাস্তি দাবি করি। আমাদের কোন শত্রু নাই। অন্য কোন কারণে কেউ তাকে মারবে না।

নিহতের মা জনি বেগম জানান, আমার মেয়ে লামিয়াকে কেউ ধর্ষণ করে মেরে ফেলেছে। যারা আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে আমরা তাদের কঠোর শাস্তি দাবি করি প্রশাসন এবং সরকারের কাছে।  

মাদারীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, শুক্রবার রাতে ফসলি ক্ষেতে একটি মরদেহ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের কারণ উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ।

news24bd.tv/আজিজ