পদ্মা নদীতে মৎস্য কর্মকর্তার ওপর জেলেদের হামলা
পদ্মা নদীতে মৎস্য কর্মকর্তার ওপর জেলেদের হামলা

১০ লক্ষাধিক মিটার জাল জব্দ

পদ্মা নদীতে মৎস্য কর্মকর্তার ওপর জেলেদের হামলা

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

মাদারীপুর জেলার শিবচরের পদ্মা নদীতে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানে মৎস্য কর্মকর্তা ও পুলিশের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার (২২ অক্টোবর) সকালে উপজেলার কাঁঠালবাড়ী ঘাট সংলগ্ন পদ্মানদীতে মৎস্য কর্মকর্তা ও পুলিশের উপর এই হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় শিবচর উপজেলা মৎস কর্মকর্তা ফেরদৌস ইবনে রহিমসহ নৌ পুলিশের দুই সদস্য ও স্পিডবোট চালক আহত হয়। পরে যৌথ অভিযান চালিয়ে এক জেলেকে আটককরা সহ ১০ লক্ষাধিক মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়।

শিবচর মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে অন্যান্য দিনের মতো নৌ পুলিশের টিম নিয়ে মৎস্য অভিযানে যায় উপজেলা মৎস কর্মকর্তা। কাঁঠালবাড়ী গোল চত্বর সংলগ্ন পদ্মা নদীতে অভিযানে নামলে চারপাশ থেকে জেলেরা ঘিরে ধরে অভিযানের টিমকে। এ সময় ইটপাটকেল নিক্ষেপসহ ধাওয়া করে অসাধু জেলেরা।  

জেলেদের হামলায় মৎস কর্মকর্তা ফেরদৌস ইবনে রহিম, দুই পুলিশ সদস্য, স্পিডবোটের চালক আহত হন।

এ সময় স্পিডবোটেও ভাঙচুর চালায় জেলেরা। পরে খবর দেওয়া হলে নৌ পুলিশ, কোস্টকার্ড, র‌্যাব এর যৌথ অভিযান শুরু হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে মালেক মোল্লা (৫৫) নামের এক জেলেকে আটক করে পুলিশ। জব্দ করে দশ লক্ষাধিক মিটার কারেন্ট জাল। দুপুর পর্যন্ত চলে এ অভিযান।

চরজানাজাত নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহানুর আলী বলেন, 'সকালে মৎস কর্মকর্তা টিম নিয়ে অভিযানে গেলে জেলেরা তাদের ঘিরে ধরে হামলা চালায়। খবর পেয়ে নদীতে যৌথ অভিযান পরিচালনা করা হয়। কাঁঠালবাড়ী সংলগ্ন নদীতে দশ লক্ষ মিটারের বেশি জাল উদ্ধার করা হয়। '

শিবচর মৎস্য কর্মকর্তা ফেরদৌস ইবনে রহিম বলেন, 'সকালে অভিযানে গেলে আমাদের উপর হামলা চালায় জেলেরা। জেলেরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। আমি সহ মোট চারজন আহত হয়েছি। প্রাথমিক চিকিৎসা নেওয়া হয়েছে। এরপর হামলার স্থান ও আশেপাশে ফের অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) রিয়াজুল আলম এর নেতৃত্বে র‌্যাব, কোস্ট গার্ড, পুলিশ অভিযানে অংশ নেয়। ঘটনাস্থল থেকে একজনকে আটক করাসহ বিপুল পরিমান নিষিদ্ধ জাল জব্দ করা হয়। পরে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয় জাল। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। '

news24bd.tv/কামরুল