‘ভণ্ডামির’ সর্বোচ্চটা দেখাচ্ছে ইইউ: রাশিয়া
‘ভণ্ডামির’ সর্বোচ্চটা দেখাচ্ছে ইইউ: রাশিয়া

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাকরোভা (ছবি: সংগৃহীত)

‘ভণ্ডামির’ সর্বোচ্চটা দেখাচ্ছে ইইউ: রাশিয়া

অনলাইন ডেস্ক

ইউক্রেন যুদ্ধ ইস্যুতে বরাবরের মতো কিয়েভকে সমর্থন জানিয়ে আসছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। রাশিয়াকে ঠেকাতে দেশটির ওপর একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ২৭টি দেশের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক জোটটি। ইউক্রেনে মস্কো বাহিনীর দ্বারা যুদ্ধাপরাধের মতো ঘটনা ঘটছে এমনটাও অভিযোগ করেছে তারা। এবার ইইউ’র বিরুদ্ধে মুখ খুলল রাশিয়া।

শনিবার (২২ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলে, ইউক্রেনে যুদ্ধাপরাধের জন্য মস্কোকে অভিযুক্ত করার অধিকার নেই ইইউ’র। কারণ বছরের পর বছর জোটটি ডনবাসের বেসামরিক নাগরিকদের দুর্ভোগ উপেক্ষা করেছে।

কিয়েভ ও ইউক্রেনের অন্যত্র বেসামরিক স্থাপনায় ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন হামলার জন্য মস্কোর নিন্দা করে শুক্রবার এক বিবৃতি দিয়েছিল ইইউ। এর প্রতিবাদ জানিয়ে পাল্টা জবাব দিল মস্কো।

ওই বিবৃতিতে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাকরোভা ইইউ’র অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন এবং জোটটি ‘ভণ্ডামির’ সর্বোচ্চটা দেখাচ্ছে বলে জানিয়েছেন।

মারিয়া জাকরোভা বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধের বিষয়ে কথা বলার নৈতিক অধিকার হারিয়েছে ইইউ। দীর্ঘ আট বছর ধরে কিয়েভের শাসকরা ডনবাসের বেসামরিক নাগরিক, মহিলা এবং শিশুদের হত্যা করছে, কিন্তু এ বিষয়ে তারা অন্ধ। ’

‘কিয়েভের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডগুলোকে তারা ঢেকে রেখেছে। একটি শান্তিপূর্ণ সমাধান খোঁজার পরিবর্তে ইইউ যুদ্ধ দীর্ঘায়িত করতে অর্থ ঢেলে যাচ্ছে,’ যোগ করেন তিনি।

ইউক্রেনের যেসব সৈন্য পশ্চিমা প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র পাচ্ছে তারা বেসামরিকদের লক্ষ্যবস্তু করে হামলা চালাচ্ছেও বলে অভিযোগ করেছেন এই রুশ মুখপাত্র।

চলতি মাসে ইউক্রেনের ওপর হামলা বাড়িয়েছে রাশিয়া। বিদ্যুৎ স্থাপনাকে লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে তারা। এতে করে বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ছে গোটা ইউক্রেন। রাশিয়ার মাটিতে ‘সন্ত্রাসী হামলার’ প্রতিশোধ হিসেবে এই কর্মকাণ্ড চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

সূত্র: আরটি

news24bd.tv/মামুন