ইউক্রেনের দাবি নাকচ করে দিলো ইরান
ইউক্রেনের দাবি নাকচ করে দিলো ইরান

সংগৃহীত ছবি

ইউক্রেনের দাবি নাকচ করে দিলো ইরান

অনলাইন ডেস্ক

ইরানি ড্রোন ব্যবহার করে ইউক্রেনজুড়ে হামলা চালাচ্ছে রাশিয়া। এতে দেশটির বিদ্যুৎ খাতসহ বিভিন্ন অবকাঠামো ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে কিয়েভের দাবি- তিনশর বেশি ইরানি ড্রোন ভূপাতিত করেছে তারা।

ইউক্রেনের বিমানবাহিনীর মুখপাত্র ইউরি ইহনাত গতকাল শুক্রবার জানিয়েছেন, তিনশর বেশি ইরানের তৈরি শহীদ-১৩৬ কামিকাজে ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ার অস্ত্রাগারের প্রধান অস্ত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে ইরানের তৈরি এ আত্মঘাতী ড্রোন। এর মাধ্যমে ইউক্রেনের গুরুত্বপূর্ণ সামরিক ও বিদ্যুৎ অবকাঠামোয় ব্যাপক হামলা চালাচ্ছে রুশ সেনারা।

গতকাল ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি দাবি করেছেন, দুই দিনের ব্যবধানে ৩০টির বেশি ড্রোন হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এ ছাড়া দেশটি এ পর্যন্ত সাড়ে চার হাজার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার পাশাপাশি আট হাজারের বেশি বিমান হামলা চালিয়েছে।

ইউক্রেন দাবি করেছে, রাশিয়াকে দুই হাজার ড্রোন সরবরাহ করেছে তেহরান। এর মধ্যে ৪০০ ড্রোন ইতোমধ্যে ইউক্রেনে হামলা চালাতে ব্যবহার করেছে রুশ বাহিনী। একই সঙ্গে পশ্চিমা দেশগুলোর দাবি- তেহরানের সামরিক বিশেষজ্ঞরা পাইলটদের প্রযুক্তিগত সহায়তা দিতে রাশিয়া অধিকৃত ক্রিমিয়ায় অবস্থান করছেন। তবে তাদের দাবি নাকচ করে দিয়েছে ইরান।

এদিকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পশ্চিমাদের একক আধিপত্যের দিন শেষের পথে জানিয়ে বলেছেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বিশ্ব এখন 'সবচেয়ে বিপজ্জনক দশকের' মুখোমুখি। গত বৃহস্পতিবার রাশিয়াভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ভালদাই ডিসকাশন ক্লাবে তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনে অভিযান চালিয়ে কোনো ভুল করেনি রাশিয়া। এ সময় পুতিন পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ তোলেন। পুতিন বলেন, রাশিয়ার মিত্রদের মস্কোবিমুখ করতে পশ্চিমা দেশগুলো পারমাণবিক হামলার ধুয়া তুলে 'ব্ল্যাকমেইল' করছে। এ ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া মারণাস্ত্র দিয়ে কিয়েভকে সহায়তা করছে। এতে দেশটির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক নষ্ট হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন প্রেসিডেন্ট পুতিন।

পুতিনের এ অভিযোগ জোরালোভাবে প্রত্যাখ্যান করেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক-ইওল। গতকাল তিনি বলেন, তাঁর দেশ ইউক্রেনকে মানবিক সহায়তা করলেও কোনো ধরনের মারণাস্ত্র দেয়নি। একই সঙ্গে রাশিয়াসহ বিশ্বের অন্য দেশের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ ও সুসম্পর্ক বজায় রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছে তার দেশ।
news24bd.tv/আলী