২০ বছর পর বাড়ি ফিরলেন সাদেক আলী
২০ বছর পর বাড়ি ফিরলেন সাদেক আলী

সংগৃহীত ছবি

২০ বছর পর বাড়ি ফিরলেন সাদেক আলী

বাগেরহাট প্রতিনিধি

হারিয়ে যাওয়ার ২০ বছর পর আবারও নিজ বাড়িতে ফিরলেন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার খর্দ্দ-ধোপাদী গ্রামের বাসিন্দা সাদেক আলী। পুলিশের সহায়তায় তিনি খুঁজে পান হারিয়ে ফেলা স্বজনদের। শনিবার (২৯ অক্টোবর) সাদেক আলী বিশ্বাসকে মোড়েলগঞ্জ পুলিশের কাছ থেকে নিজেদের হেফাজতে নেন তারই ছোট ভাই নূরুল ইসলাম বিশ্বাস।  

উল্লেখ্য, মানসিক ভারসাম্যহীন সাদেক ৩৪ আগে ঝিনাইদহ থেকে হারিয়ে যান।

ঘুরতে ঘুরতে আসেন বাগেরেহাটের মোড়েলগঞ্জে। তাকে আশ্রয় দেন মোড়েলগঞ্জের খাদিজা বেগম (৫৫)।  

এ বিষয়ে মোড়েলগঞ্জ থানার এসআই নুরুল ইসলাম জানান, আমার বাড়ি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায়। মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ২০ বছর আগে আমাদের এলাকার সাদেক আলী বিশ্বাস নামের এক ব্যক্তির নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি আমার জানা ছিল।

সম্প্রতি বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ থানা আমার পোস্টিং হয়। মোড়েলগঞ্জের মাঝিবাড়ি এলাকায় সাদেককে দেখতে পাই। তার কথায় ঝিনাইদহের টান রয়েছে। এরপর তার খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারি, সে ২০ বছর আগে উপজেলার মাঝিবাড়ী এলাকার দরিদ্র খাদিজা বেগমের (৫৫) কাছে আশ্রয় পান। খাদিজা বেগম তার থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে। আমি বিষয়টি নিশ্চিত হতে তার সঙ্গে ছবি তুলে কালীগঞ্জের এক সাংবাদিকের কাছে পাঠাই। সেই ছবি দেখে তার ভাই নূরুল ইসলাম বিশ্বাসকে চিনতে পারেন।  

এরপর মোড়েলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান ও নিশানবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চুর সহায়তায় সাদেক আলী বিশ্বাসকে মোড়েলগঞ্জ থানায় নিয়ে আসা হয়।  

সাদেক আলী বিশ্বাসের ছোট ভাই নূরুল ইসলাম বিশ্বাস জানান, বড় ভাই মানসিক ভারসাম্যহীন। ২০ বছর আগে তিনি বাড়ি থেকে হয়ে আর ফেরেননি। তখন তার বয়স ছিল ৩৪ বছর। এ ঘটনায় থানায় নিখোঁজ ডায়রি করা হয়।

news24bd.tv/হারুন