ভাইকে বিশ্বকাপের পরই অধিনায়কত্ব ছাড়ার পরামর্শ কামরানের
ভাইকে বিশ্বকাপের পরই অধিনায়কত্ব ছাড়ার পরামর্শ কামরানের

ভাইকে বিশ্বকাপের পরই অধিনায়কত্ব ছাড়ার পরামর্শ কামরানের

অনলাইন ডেস্ক

আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। চলমান টি২০ বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে অনুজ্জ্বল তার পারফরম্যান্স। হতাশ করছেন অধিনায়ক হিসেবেও। সুপার টুয়েলভে ভারত এবং জিম্বাবুয়ের কাছে হারের পর তাই কাঠগড়ায় বাবর।

যারপরনাই পাকিস্তানের একাধিক সাবেক ক্রিকেটার তাকে দিচ্ছেন অধিনায়কত্ব ছাড়ার পরামর্শ। অনেকের মতে অধিনায়কত্বের চাপ সামাল দিতে পারছেন না বাবর। যার প্রভাব পড়ছে তার ব্যাটিংয়ে।

পাকিস্তানের টিভি চ্যানেল এআরওয়াই নিউজে এবার একই কথা বললেন সাবেক পাকিস্তানি ক্রিকেটার ইউনিস খান এবং কামরান আকমল।

দুজনেরই বাবরকে পরামর্শ দিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের পরেই তাকে অধিনায়কত্ব ছাড়ার।

সম্পর্কে কামরান আকমল বাবর আজমের ফুফাতো ভাই। সম্পর্কের খাতিরেই কামরান বাবরকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘সে যদি আমাকে বড় ভাই হিসেবে মানে, তবে আমি বলবো, বিশ্বকাপ শেষেই তার নেতৃত্ব ছাড়া উচিত। যদি সে ২৫ হাজার অথবা ২২ হাজার রান করতে চায়, তবে তাকে এক খেলোয়াড় হিসেবে খেলে যাওয়া উচিত। তা না হলে তাকে কঠিন চাপের মুখে পড়তে হবে এবং তার পারফরম্যান্সও নিচে নামতে থাকবে। ’

বাবরকে ভারতীয় তারকা ক্রিকেটার বিরাট কোহলির থেকেও শিক্ষা নিতে বলেছেন কামরান। তিনি বলেন, ‘বাবর অথবা আমার চাচা যদি বিষয়টি উপলব্দি করে, তবে তার সরে যাওয়া উচিত। তার বিরাট কোহলির মতো শুধু খেলাতেই মনোযোগ দেওয়া উচিত। তাকে দীর্ঘ সময় খেলে যেতে হবে, কেননা তার মতো এতো সলিড ব্যাটার পাকিস্তানি এখন আমরা আর দেখি না। ’

একই বিষয়ে ইউনিস খানও সুর মেলান কামরানের সঙ্গে। তার মতে, পাকিস্তান জাতীয় দলের জন্য যা দরকার তা নেতা হিসেবে দিতে পারবেন না বাবর। ইউনিস বলেন, ‘অনেক দিন ধরেই আমরা বাবর আজমের নেতৃত্ব নিয়ে কথা বলছি। যখন আপনি একই ভুল বারবার করবেন, তখন সেটা আপনার অভ্যাসে পরিণত হবে। হয়তো আপনি মনোযোগ দিতে পারবেন না। ’

ব্যাটার হিসেবে বাবরের প্রশংসা করলেও, তার মধ্যে নেতা হওয়ার গুণ নেই বলে মনে করেন ইউনুস খান, ‘যদি বাবরকে নিয়ে বলতে হয়, সে সেরা একজন ব্যাটার। ব্যক্তি হিসেবেও সে খুবই ভালো। তবে নেতৃত্বগুণ কিন্তু সবার মধ্যে থাকে না। আকমলের মতোই বলতে হচ্ছে, নেতা হিসেবে তার মতো স্ফুলিঙ্গ নেই। ’

news24bd.tv/সাব্বির