বুয়েট শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার: বন্ধু ও বান্ধবীকে জিজ্ঞাসাবাদ
বুয়েট শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার: বন্ধু ও বান্ধবীকে জিজ্ঞাসাবাদ

সংগৃহীত ছবি

বুয়েট শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার: বন্ধু ও বান্ধবীকে জিজ্ঞাসাবাদ

অনলাইন ডেস্ক

নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদী থেকে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী ফারদিন নূরের (পরশ) লাশ উদ্ধারের ঘটনায় তাঁর একজন ছেলেবন্ধু ও এক বান্ধবীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। রামপুরা থানা-পুলিশ সূত্র এ তথ্য জানায়। সোমবার বিকেলে লক্ষ্মীনারায়ণ কটন মিলের পেছনে নদী থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ বলছে, ফারদিন নূরকে কেউ হত্যা করে নদীতে ফেলে দিয়েছে, নাকি তিনি আত্মহত্যা করেছেন, সে বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেনি তারা।

মৃত্যুর রহস্য উদ্‌ঘাটনে ফারদিনের এক ছেলেবন্ধু ও এক বান্ধবীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাঁর বান্ধবী একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। চার বছর ধরে তাঁদের মধ্যে যোগাযোগ ছিল।

গত ৪ নভেম্বর রাজধানীর ডেমরা থেকে নিখোঁজ হন ফারদিন নূর।

পরদিন তার বাবা নূরউদ্দিন রানা রাজধানীর রামপুরা থানায় একটি জিডি করেন।

সন্তানের খোঁজ চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও একটি পোস্ট করেন নূরউদ্দিন রানা। সেখানে তিনি উল্লেখে করেন, ফারদিন বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের-১৮তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। শুক্রবার রাতে নিখোঁজ হওয়ার আগে তাকে শেষবার রামপুরা ব্রিজ এলাকায় দেখা যায়। ওই দিন রাত পৌনে ১১ থেকে ১১টার মধ্যে ফারদিন সেখানে অবস্থান করছিলেন। এরপর তার বুয়েটের হল কিংবা বাসায় ফেরার কথা ছিল। কিন্তু তিনি ফেরেনি।

news24bd.tv/ইস্রাফিল