টাঙ্গাইলে বালুঘাট দখলকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, আহত ১
টাঙ্গাইলে বালুঘাট দখলকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, আহত ১

সংগৃহীত ছবি

টাঙ্গাইলে বালুঘাট দখলকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, আহত ১

অনলাইন ডেস্ক

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে উপজেলায় বালুঘাট দখলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষে মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে আব্দুর রাজ্জাক নামে এক ব্যক্তি আহত হয়েছেন। বুধবার (১৬ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার গোবিন্দাসী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।  

জানা যায়, উপজেলার গোবিন্দাসী থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত ১৯টি বালুঘাট থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে এলাকার প্রভাবশালীরা।

অবৈধভাবে বালুঘটা দখল নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে গোবিন্দাসী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম আমিন, সাবেক ইউপি সদস্য আসাদুজ্জামান আসাদ ও হোবিন্দাসী বাজার বণিক সমিতির সভাপতি ছরোয়ার আলমের বিরুদ্ধে। তারা সিরাজগঞ্জ থেকে বালুভর্তি পাঁচটি বাল্কহেড যমুনা নদীর গোবিন্দাসী ঘাটে ভেড়ান। ওই বাল্কহেড থেকে বালু নামাতে সাবেক ইউপি সদস্য আলিমুদ্দিনের বালুঘাটের রাস্তা ব্যবহারের প্রয়োজন হয়। বুধবার দুপুরে বাল্কহেড থেকে সাবেক চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম আমিনরা বালু নামাতে গেলে আলিমুদ্দিন গংরা বাধা দেয়।
এ নিয়ে প্রথমে উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ও পরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় আব্দুর রাজ্জাক আহত হন। পরে থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয় কয়েকজন অভিযোগ করে বলেন, বালু উত্তোলন, বালুঘাট দখল ও বালু সরবরাহ নিয়ে ভূঞাপুরে প্রভাবশালীদের মধ্যে বিরোধ রয়েছে। সেই বিরোধের জেরে বুধবার দুপুরে দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ নিয়ে আগেও একাধিকবার সংঘর্ষ, গুলি ও হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।  

গোবিন্দাসী ইউপি চেয়ারম্যান মো. দুলাল হোসেন চকদার জানান, বালু পরিবহনের রাস্তা ব্যবহার নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃুষ্টি হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।  

ভূঞাপুর থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম জানান, বালুঘাটের বিষয় নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। দুই পক্ষ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে বিষয়টি সমাধান করা হবে।

news24bd.tv/হারুন