বিশ্বকাপে লজ্জার ইতিহাস গড়ল কাতার
বিশ্বকাপে লজ্জার ইতিহাস গড়ল কাতার

হারের বেদনায় নীল কাতারের এক ফুটবলার -টুইটার

বিশ্বকাপে লজ্জার ইতিহাস গড়ল কাতার

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বকাপের প্রথম আসর বসে ১৯৩০ সালে। এরপর একে একে বসেছে ফুটবল বিশ্বকাপের আরও ২১টি আসর। প্রতিবারই বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে স্বাগতিকরা। তবে সে রেকর্ডে ছেঁদ পড়ল রোববার কাতার হেরে যাওয়ায়।

বিশ্বকাপ ইতিহাসে প্রথম দল হিসেবে উদ্বোধনী ম্যাচে হারার লজ্জার রেকর্ড এখন আরবের দেশটির।

রোববার আল বাইত স্টেডিয়ামে কাতার বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ইকুয়েডরের বিপক্ষে ০-২ গোলে হেরেছে স্বাগতিকরা। তাতেই লজ্জার রেকর্ডে নাম ওঠে কাতারের।

স্বাগতিক হওয়ার সুবাদে প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলছে কাতার।

আগে বিশ্বমঞ্চে খেলার অভিজ্ঞতা না থাকলেও ইকুয়েডরের বিপক্ষে ফেবারিট ছিল হাসান আল-হায়দোসের দলই। দলটির সাম্প্রতিক ফর্ম ছিল ঈর্ষণীয়। শেষ পাঁচ ম্যাচে ছিল না কোনো হার। অন্যদিকে, ইকুয়েডর শেষ পাঁচ ম্যাচে জেতে মাত্র একটিতে। কিন্তু মাঠের খেলায় প্রায় পুরোটা সময় ছড়ি ঘুরিয়েছে ইকুয়েডরিয়ান ফুটবলাররা।

কাতার মূলত ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে প্রথমার্ধেই। ইকুয়েডর অধিনায়ক এনার ভ্যালেন্সিয়া জোড়া গোল করে ইকুয়েডরকে বসায় চালকের আসনে। এরপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি ফেলিক্স সানচেজের শিষ্যরা। দলটি ঘুরে দাঁড়ানোর একাধিক সুযোগ পেলেও, আক্রমণভাগের ফুটবলারদের ব্যর্থতায় কোনো গোলই পাওয়া হয়নি কাতারের। ফলে আফসোসে পুড়েই মাঠ ছাড়তে হয় স্বাগতিক সমর্থকদের। কাতারের ফুটবলাররা তো মাঠ ছাড়ে লজ্জার রেকর্ডে নাম লিখিয়ে।

news24bd.tv/সাব্বির