ইরান-ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে আলোচনায় মাহসা আমিনি
ইরান-ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে আলোচনায় মাহসা আমিনি

সংগৃহীত ছবি

ইরান-ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে আলোচনায় মাহসা আমিনি

অনলাইন ডেস্ক

পুলিশ হেফাজতে ইরানী তরুণী মাহসা আমিনির মৃত্যুতে গিরে বিক্ষোভ চলছেই। দাবি উঠেছিল বিশ্বকাপ থেকে ইরানকে বাদ দেওয়ার। তবে শেষ পর্যন্ত হয়নি সেটি। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে ইরান।

তবে ম্যাচের আগে ইরানকে সামলাতে হচ্ছে সেই মাহসা আমিনি বিতর্ক। ম্যাচের আগে এ নিয়ে কথা বলেছেন দলটির অধিনায়ক এহসান হাজসাফি। জানিয়েছেন, ইরানের মিডিয়াতে বিষয়টি যেভাবে তুলে ধরা হচ্ছে তা ঠিক নয়।

মাহসা আমিনির মৃত্যুর ঘটনায় গত দুই মাস ধরেই ইরানসহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে চলছে বিক্ষোভ।

সরকার বিরোধী আন্দোলনে সমর্থন দেওয়ায় দেশটিতে গ্রেপ্তারের শিকার হয়েছেন কয়েক হাজার। এছাড়াও বহু আন্দোলনকারীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে ইরানের বিরুদ্ধে। যদিও এসব বিষয়ে ইরান সরকারকে সমর্থন দিয়েছে দেশটির মিডিয়া। তবে মিডিয়ার তুলে ধরা ইরানের পরিস্থিতি যে ঠিক নয় সে ব্যাপারে রোববার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান হাজসাফি।

তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের পরিস্থিতি ঠিক নেই। আমাদের জনগণ সুখী নয় তা মেনে নিতে হবে। আমরা এখানে আছি কিন্তু এর অর্থ এই নয় যে আমাদের তাদের কণ্ঠস্বর হওয়া উচিত নয় বা আমাদের তাদের সম্মান করা উচিত নয়। আমাদের যা কিছু আছে তা তাদের কাছ থেকে। আমাদের লড়াই করতে হবে। ইরানের সাহসী জনগণকে উপস্থাপন করতে আমাদের কিছু গোল করতে হবে। আমি আশা করি জনগণের প্রত্যাশা অনুযায়ী পরিস্থিতি পরিবর্তন হবে। ’

এদিকে ইরান-ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে ব্রিটিশ কৌতুক অভিনেতা ওমিদ জালিলি ইংল্যান্ডকে ইরানের সাথে সংহতি দেখানোর আহ্বান জানিয়েছেন। নিজের চুল কাটার অঙ্গভঙ্গি করে ইরানী নারীদের সাথে একাত্মতা ঘোষণার একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন তিনি। সেই সাথে ম্যাচে ইরানের বিপক্ষে গোল পেলে বিশেষ অঙ্গভঙ্গি করে বিশ্বব্যাপী আন্দোলন ছড়িয়ে দিতে বলেছেন।

এসময় তিনি বলেন, ‘ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়দের প্রতি আমার বার্তা হল বিশ্বব্যাপী ব্যাপক প্রভাব ফেলতে ম্যাচে খুব ছোট অঙ্গভঙ্গি করার বিশাল সুযোগ রয়েছে আপনাদের। ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়, ওয়েলস এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের খেলোয়াড়রা, যখন গোল করবেন তখন যদি ‘চুল, স্নিপ’ এই একটি সহজ বিবৃতি দেন, যা ইরানের নারী ও মেয়েদের জন্য একটি বিশাল বার্তা পাঠায়। ম্যাচে এই চিহ্নটি করুন এবং একটি জীবন বাঁচান। ’

এছাড়াও জালিলি বিশ্বাস করেন ইরানকে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণের অনুমতি দেওয়া উচিত ছিল না। তিনি বলেন, ‘ইরান একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র। নারীদের ফুটবল খেলায় যেতে দেওয়া হয় না ইরানে। তাদের বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়া উচিত ছিল। তারা বৈষম্য বিরোধী প্রতিটি ফিফার আইন ভঙ্গ করে। ’

news24bd.tv/আমিরুল