চীনে করোনার নতুন ঢেউ, আক্রান্তের রেকর্ড
চীনে করোনার নতুন ঢেউ, আক্রান্তের রেকর্ড

সংগৃহীত ছবি

চীনে করোনার নতুন ঢেউ, আক্রান্তের রেকর্ড

অনলাইন ডেস্ক

এখনও ‘জিরো কোভিড নীতিতে’ চলছে চীন। তবে কঠোর ব্যবস্থা থাকা সত্ত্বেও দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে। এমনকি গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৩১ হাজার ৫৩৭ করোনা আক্রান্ত শনাক্ত করা গেছে; মহামারির শুরুর পর থেকে এটি সর্বোচ্চ। খবর বিবিসির।

রাজধানী বেইজিং, দক্ষিণাঞ্চলীয় বাণিজ্য কেন্দ্র গুয়াংজুসহ বেশ কয়েকটি বড় শহরে করোনা সংক্রমণের এই ঊর্ধ্বমুখী প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে।

বিবিসি বলছে, গত এপ্রিলে চীনে সর্বোচ্চ করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়। ওই সময় একদিনে শনাক্ত হয়েছিল ২৮ হাজার। তবে বুধবার সেই রেকর্ড ভেঙে গেছে।

এ দিন  ৩১ হাজার ৫৩৭ জনের দেহে ভাইরাসটির অস্তিত্ব মিলেছে। নতুন সংক্রমণের রেকর্ডের দিনে বেইজিংয়ে একজন মারা গেছেন।

শনাক্ত হওয়া রোগীদের ৩ হাজার ৯২৭ জনের উপসর্গ আছে। বাকি ২৭ হাজার ৫১৭ জনের উপসর্গ নেই বলে বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

বিবিসি বলছে, চীনের জিরো কোভিড নীতি ১৪০ কোটি মানুষের দেশের অনেকের জীবন রক্ষা করেছে। তবে এই নীতি দেশটির অর্থনীতি ও সাধারণ মানুষের জীবনে একটি শাস্তিমূলক আঘাতও দিয়েছে। তবে সম্প্রতি করোনার বিধি নিষেধ কিছুটা শিথিল করেছিল চীনা কর্তৃপক্ষ। এরপরেই আক্রান্তের এই ঊর্ধ্বমুখী চিত্র দেখা গেল।

স্থানীয় প্রশাসনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বেইজিংয়ে গতকাল স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত ৫০৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে যাদের উপসর্গ আছে। উপসর্গ নেই এমন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ১৩৯ জন। আগের দিন উপসর্গসহ ৩৮৮ জন আর উপসর্গহীন ১ হাজার ৯৮ জন রোগী শনাক্ত হয়েছিলেন।

চীনের অর্থনৈতিক কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত সাংহাইতে উপসর্গ আছে এমন নয়জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। উপসর্গ নেই এমন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৫৮ জন। আগের দিন যথাক্রমে এ ধরনের রোগী শনাক্ত হয়েছিলেন ১৫ ও ৫৩ জন।

এ দিকে নতুন করে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন ইতিমধ্যে বিস্তারিত নির্দেশনা দিয়েছে। সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের করোনা পরীক্ষা, ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে কি পদক্ষেপ নেওয়া হবে এবং আইসোলেশনের বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

news24bd.tv/মামুন

এই রকম আরও টপিক