জিপিএ-৫ পেল বাবা-ছেলে!
জিপিএ-৫ পেল বাবা-ছেলে!

জিপিএ-৫ পেল বাবা-ছেলে!

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

‘ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। ’ এই প্রবাদকে শতভাগ সত্য প্রমাণ করলেন এখলাছ উদ্দীন নয়ন। ৪৫ বছর বয়সে কারিগরি বোর্ডের অধীনে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, তার ছেলে মো. রায়হানও জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে।

এখলাছ উদ্দিন ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার বাসিন্দা। এছাড়াও তিনি উপজেলার ২ নং গৌরীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্যও ছিলেন। বাবা-ছেলের একসাথে এসএসসি পাশকে কেন্দ্র করে ওই পরিবার এখন আনন্দের জোয়ারে ভাসছে। এছাড়াও তাদের এমন সাফল্যের খবর ছড়িয়ে পড়লে সোমবার বিকেল থেকে বাড়িতে ভিড় করতে থাকেন স্থানীয়রা।

সেই সাথে চলছে মিষ্টি বিতরণ।

অনেক বাধা পেরিয়ে এসএসসি পাশ করা এখলাছ উদ্দীন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘শিক্ষার কোনো বয়স নাই। আমার আগ্রহ ছিল লেখাপড়া করার। সেই আগ্রহ থেকেই এই বছর মগরাইল আদর্শ কারিগরি ইনস্টিটিউট থেকে পরীক্ষা দিয়ে
জিপিএ-৫ পেয়েছি। ’

তিনি আরও জানান, ‘আমার স্ত্রীর দেওয়া উৎসাহ থেকেই পড়াশোনায় মনোযোগী হই। আমার ছেলে আমাকে অনেক সাহায্য করেছে। ছেলে রায়হানও গৌরীপুর টেনকিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে। ’

জানতে চাইলে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার মগরাইল আদর্শ কারিগরি ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ আব্দুল কাইয়ুম জানান, এখলাছ উদ্দীন নয়ন এই প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত শিক্ষার্থী। তাকে দেখে এলাকার ছাত্রছাত্রীদের পাশাপাশি অন্যরাও উদ্বুদ্ধ হবে। এলাকার গণ্যমান্যরা তাকে ঘিরে আনন্দে বিমোহিত। তিনি প্রমাণ করলেন, শিক্ষার কোনো বয়স নেই। ’

এই রকম আরও টপিক