শেষ ষোলোর টিকিট নিশ্চিত করতে আর্জেন্টিনার একাদশ
শেষ ষোলোর টিকিট নিশ্চিত করতে আর্জেন্টিনার একাদশ

ফাইল ছবি

শেষ ষোলোর টিকিট নিশ্চিত করতে আর্জেন্টিনার একাদশ

অনলাইন ডেস্ক

শেষ ষোলোর টিকিট নিশ্চিত করতে পোল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই আর্জেন্টিনার। ম্যাচ ড্র হলে তাদের মেলাতে হবে নানা সমীকরণ। বাঁচা-মরার এমন ম্যাচে সবাইকে চমকে দিয়ে লাউতারো মার্টিনেজকে বেঞ্চে রেখে একাদশ সাজিয়েছে লিওনেল স্ক্যালোনি। কাতারের ৯৭৪ স্টেডিয়ামে বুধবার (৩০ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় মাঠে গড়াবে ম্যাচটি।

আগের দুই ম্যাচে লিওনেল মেসি ও অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার সঙ্গে লাউতারো মার্টিনেজকে রেখেই শুরুর একাদশ সাজিয়েছিল স্ক্যালোনি। কিন্তু বাঁচা-মরার ম্যাচে তিনি ভরসা রাখলেন হুলিয়ান আলভারেজের ওপর।

এছাড়া রক্ষণভাগে গঞ্জালো মন্টিয়েলের বদলে পোল্যান্ডের বিপক্ষে শুরুর একাদশে সুযোগ পেয়েছেন নাহুয়েল মোলিনা। এক ম্যাচ পর রক্ষণে ফিরেছেন ক্রিস্টিয়ান রোমেরোও।

অন্যদিকে মিডফিল্ডে গুইতো রদ্রিগেজের জায়গায় এসেছেন এনজো ফার্নান্দেজ। বাকি সবাই আছে অপরিবর্তিত।

প্রথম ম্যাচে হোঁচট খাওয়ায় শুরুতেই কিছুটা এলোমেলো। তবে ভাগ্য এখনো নিজেদের হাতেই আছে তাদের। গ্রুপপর্ব টপকাতে মেসিরা যদি কোনো জটিলতার মধ্যে না পড়তে চায়, তাহলে পোল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ই একমাত্র উপায়। মানে শেষ ষোলোর ভাগ্য এখনও তাদের হাতেই আছে। তবে হেরে গেলেই সর্বনাশ, আকাশী-সাদাদের বিদায় নিশ্চিত।

পোল্যান্ডের বিপক্ষে ড্র করলেও নকআউটে ওঠার সুযোগ থাকছে আর্জেন্টিনার। সেক্ষেত্রে তাদের পয়েন্ট হবে ৪। পোলিশদের সঙ্গে ড্র করে আর্জেন্টাইনরা কামনা করবে সৌদি আরব যেন মেক্সিকোকে না হারাতে পারে। যদি আর্জেন্টিনা ড্র করে এবং সৌদি আরব জেতে, তাহলে আর্জেন্টিনা বাদ। পোল্যান্ড ও সৌদি পাবে শেষ ষোলোর টিকিট।

যদি কোনোভাবে আর্জেন্টিনা এবং মেক্সিকো কিংবা সৌদি আরবের পয়েন্ট সমান হয় তাহলে প্রথমে গোল পার্থক্য, পরে গোলের হিসাব বিবেচনা করা হবে। সেক্ষেত্রে আর্জেন্টিনা ও সৌদি আরবের পয়েন্ট ৪ হলে আর্জেন্টাইনরা গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় চলে যাবে শেষ ষোলোতে। তবে আর্জেন্টিনার ড্রয়ের পর মেক্সিকো জিতে গেলে দুই দলের পয়েন্ট সমান ৪ হবে। সেক্ষেত্রে মেক্সিকানরা ১ বা দুই গোলে জিতলে আর্জেন্টাইনরা গ্রুপ পর্ব শেষ করবে দ্বিতীয় হয়ে এবং মেক্সিকো হবে তৃতীয়।

যদি মেক্সিকো তিন গোলে জেতে তাহলে গ্রুপ নির্ধারণ হবে গোল পার্থক্যের হিসাবে, সেটাতেও মীমাংসা না হলে গোলসংখ্যা বিবেচনা করা হবে। আর চার গোলে জিতলে মেক্সিকো আর্জেন্টিনাকে পেছনে ফেলে উঠে যাবে নকআউটে।

মুখোমুখি লড়াইয়ের পরিসংখ্যানও আর্জেন্টিনার পক্ষে। ১৯৬৬ সালে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি হয়েছিল দুদল। সেবারের দেখায় দুদলের ম্যাচটি শেষ হয়েছিল ১-১ গোলের সমতায়। সব মিলিয়ে ১১ বার মুখোমুখি হয়ে আর্জেন্টিনা জয় পেয়েছে মোট ৬ ম্যাচে। ৩ ম্যাচে জয় পেয়েছে পোল্যান্ড। বাকি দুই ম্যাচে জয় পায়নি কেউই।

বিশ্বকাপের মঞ্চে অবশ্য লড়াইটা হয়েছে সমানে সমান। ১৯৭৪ বিশ্বকাপে প্রথমবারের দেখায় পোল্যান্ড ৩-২ গোলে হারিয়েছিল আর্জেন্টিনাকে। ১৯৭৮ বিশ্বকাপেই ফের দেখা হয় দুদলের। এবার ২-০ গোলে পোলিশদের হারিয়ে প্রতিশোধ নেয় আর্জেন্টিনা। দুদলের মুখোমুখি লড়াইয়ে গোল করার দিক দিয়েও এগিয়ে আর্জেন্টিনা। এ ১১ ম্যাচে আর্জেন্টিনা গোল করেছে ১৮টি এবং হজম করেছে ১২টি।

তবে, পোল্যান্ডের জন্য ইতিবাচক হতে পারে একটি বিষয়। দুদলের সবশেষ লড়াইয়ে জয় পেয়েছিল পোলিশরাই। ২০১১ সালে সে দেখায় অবশ্য আর্জেন্টিনা মাঠে নেমেছিল দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে। আদ্রিয়ান মিয়েরজেজেভস্কি ও পাওয়েল ব্রোজেকের গোলে ২-১ ব্যবধানে আর্জেন্টিনাকে হারিয়েছিল তারা। আর্জেন্টিনার হয়ে একমাত্র গোলটি করেন মার্কো রুবেন।

আর্জেন্টিনার একাদশ

গোলরক্ষক: এমিলিয়ানো মার্টিনেজ
রক্ষণভাগ: নাহুয়েল মোলিনা, নিকোলাস ওতামেন্দি, ক্রিস্টিয়ান রোমেরো, মার্কোস অ্যাকুনা

মিডফিল্ড: রদ্রিগো ডি পল, এনজো ফার্নান্দেজ
ফরোয়ার্ড: অ্যালেক্সিস ম্যাক-অ্যালিস্টার, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া, হুলিয়ান আলভারেজ ও লিওনেল মেসি

news24bd.tv/কামরুল