‘সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্বে সব স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা এখন এক ছাতার নিচে’
‘সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্বে সব স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা এখন এক ছাতার নিচে’

মতবিনিময় সভা

‘সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্বে সব স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা এখন এক ছাতার নিচে’

মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুরে বাংলাদেশ জুয়েলার্স এসোসিয়েশনের (বাজুস) মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে শহরের লেকপাড় এলাকার লেকভিউ পার্টি সেন্টারে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাজুস মাদারীপুর জেলা শাখার সভাপতি ননী গোপাল কর্মকার নন্দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ‘ল’ এন্ড মেম্বারশিপের সাবেক সভাপতি ও চেয়ারম্যান এম. এ ওয়াদুদ খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ‘ল’ এন্ড মেম্বারশিপের সহ-সম্পাদক ও চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান কচি ভূঁইয়া, বাজুসের কার্যনির্বাহী সদস্য ও স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ডিস্ট্রিক্ট সদস্য পবিত্র চন্দ্র ঘোষ।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এম. এ ওয়াদুদ খান বলেন, বর্তমান প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীর এমন এক ব্যক্তি যে, তিনি ছাইতে হাত দিলে তা স্বর্ণ হয়ে যায়। বসুন্ধরা গ্রুপের যতগুলো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে সবগুলোই মানুষের সেবা করে যাচ্ছে। তিনি প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর বাজুসের সদস্য সংখ্যা বেড়ে এখন ৪০ হাজারে পৌঁছেছে। আমরা মনে করি, সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্বে বাংলাদেশে তৈরি স্বর্ণালঙ্কার অতি দ্রুত দেশের বাইরেও রপ্তানি হবে।

সভায় বক্তারা বলেন, একটা সময় জুয়েলারি ব্যবসায়ীরা ছন্নছাড়া ও ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন ছিলো। সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্বে সব স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা এখন এক ছাতার নিচে আসতে পেরেছে। তিনি সব স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে বটবৃক্ষের ন্যায় ছায়া দিয়ে রক্ষা কবচ হয়ে দাঁড়িয়েছেন। তিনি যখন থেকে প্রেসিডেন্ট হয়ে বাজুসের হাত ধরেছেন তারপর থেকে সকল স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা অনেক ভালো আছেন। বর্তমানে বাজুস দেশের একটি শক্তিশালী সংগঠন।

অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন বাজুস মাদারীপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ সিকদার কামাল। সঞ্চালনায় ছিলেন আতিকুর রহমান বাবু ও ওবাইদুর রহমান আকন। এছাড়াও সভায় জেলার জুয়েলারি ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় বাংলাদেশ জুয়েলার্স এসোসিয়েশনের (বাজুস) প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীরের পক্ষে সম্মাননা স্মারক গ্রহণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি। অনুষ্ঠানে তাদেরকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।