বিশ্বকাপ খেলতে এসে সতীর্থের স্ত্রীর সঙ্গে ‘অবৈধ সম্পর্ক’
বিশ্বকাপ খেলতে এসে সতীর্থের স্ত্রীর সঙ্গে ‘অবৈধ সম্পর্ক’

সংগৃহীত ছবি

বিশ্বকাপ খেলতে এসে সতীর্থের স্ত্রীর সঙ্গে ‘অবৈধ সম্পর্ক’

অনলাইন ডেস্ক

সুইজারল্যান্ডের কাছে হেরে কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে সার্বিয়া। ব্যর্থ বিশ্বকাপ মিশনের মধ্যে সার্বিয়ার স্ট্রাইকার দুসান ভ্লাহোভিচের বিরুদ্ধে তারই সতীর্থের স্ত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগ উঠেছে। যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি।

অভিযোগ উঠেছে, দুসান ভ্লাহোভিচ তারই সতীর্থ এবং গোলরক্ষক প্রেদ্রাগ রাজকোভিচের স্ত্রী আনা ক্লার্কের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়েছে পড়েছেন।

এমনকি দুজন একসঙ্গে রাতযাপনও করেছেন।  

তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন য়্যুভেন্তাস স্ট্রাইকার। তিনি বলেছেন, এভাবে সংবাদ সম্মেলন শুরু করায় দুঃখিত। কিন্তু এ ব্যাপারে কথা বলতেই হবে।

কারণ আমার নামে নোংরা খবর ছড়ানো হচ্ছে। সাধারণত এ ধরনের যা শুনি বা দেখি, সেগুলো খুব একটা পাত্তা দেই না। আসলে যারা এসব লেখে, তাদের কাছে আর কোনো কাজ নেই। ওরা হয় হতাশ, না হয় খুব রেগে গেছে। তবু দলের স্বার্থে আমাকে মুখ খুলতেই হচ্ছে। একটা কথাই বলতে পারি, অত্যন্ত জঘন্য কথা লেখা হচ্ছে। আমি এর থেকে নিজের নাম সরাতে চাই। ’

দুসানের ছেলে গুরুতর অসুস্থ থাকাকালীন এক সপ্তাহ হাসপাতালেই ছিলেন স্ত্রী তাদিজা। সেই প্রসঙ্গ মনে করিয়ে দুসান বলেছেন, ‘এর থেকেও খারাপ সময় দেখেছি আমরা। তখন সবাই আমাদের উপেক্ষা করেছে। তাদিজা কেমন আছে সেই খেয়াল কেউ রাখেনি। হয়তো ওরা ভেবেছে এসব লিখলে আহত বাঘকে আর একটু খোঁচা দেয়া যাবে। কিন্তু তাতে লাভ হবে না। ’

সূত্র : আনন্দবাজার

news24bd.tv/হারুন