রাশিয়ান তেলের মূল্যসীমা অবিলম্বে পুতিনকে আঘাত করবে: যুক্তরাষ্ট্র
রাশিয়ান তেলের মূল্যসীমা অবিলম্বে পুতিনকে আঘাত করবে: যুক্তরাষ্ট্র

ছবি: রয়টার্স

রাশিয়ান তেলের মূল্যসীমা অবিলম্বে পুতিনকে আঘাত করবে: যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক

রাশিয়ার সমুদ্রজাত জ্বালানি তেলের মূল্যসীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ)। আর এতেই রাশিয়ার আয় কমে যাবে ও পুতিনকে জোরেশোরে আঘাত করবে। এমনটা দাবি করছে যুক্তরাষ্ট্র। খবর বিবিসির।

যুক্তরাষ্ট্র বলছে, রাশিয়ান তেলের দামের নতুন সীমাবদ্ধতা অবিলম্বে পুতিনের রাজস্বে আঘাত হানবে। কমে যাবে তাদের আয়।

কয়েক মাসের প্রচেষ্টার পর শুক্রবার পশ্চিমা মিত্ররা রাশিয়ার তেলের মূল্যসীমা নির্ধারণ (প্রাইস ক্যাপ) করে দিয়েছে। এর ফলে রাশিয়ার সমুদ্রজাত অপরিশোধিত প্রতি ব্যারেলে তেলের জন্য তাদের গুনতে হবে মাত্র ৬০ ডলার।

এতে করে ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানো দেশটির রাজস্ব অনেকাংশে কমে যাবে বলে মনে করে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমারা।

আগামী ৫ ডিসেম্বর থেকে নতুন এই দাম কার্যকর হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি ডিপার্টমেন্টের সেক্রেটারি জ্যানেট ইয়ালেন বলেন, ‘তেলের দাম বাড়ার সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছিল নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে। জ্বালানি ও খাদ্যের দাম অনেক বেড়ে গিয়েছিল। তবে ক্যাপের ফলে তারা এবার উপকৃত হবেন। এ ছাড়া ইউক্রেনে নৃশংস আগ্রাসনের জন্য রাশিয়া যে রাজস্ব ব্যবহার করছে, তা সীমিত হবে। ’

এক বিবৃতিতে জ্যানেট বলেন, ‘রাশিয়ার অর্থনীতি ইতোমধ্যেই সংকুচিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এর বাজেট ক্রমবর্ধমানভাবে কমে যাচ্ছে। তেলের মূল্যসীমা অবিলম্বে পুতিনের রাজস্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উৎসে ভাটা নিয়ে আসবে। ’

বিবিসি বলছে, ইউক্রেনের যুদ্ধে অর্থায়নের জন্য মস্কোর ক্ষমতাকে আঘাত করতে জি-৭ জোটের দেশগুলো গত সেপ্টেম্বর থেকে মূল্যসীমা নির্ধারণের প্রক্রিয়া নিয়ে কাজ করছে।

তেলের মূল্যসীমা নির্ধারণের পর এক যৌথ বিবৃতিতে জি-৭, ইইউ ও অস্ট্রেলিয়া জানায়, ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ার লাভবান হওয়ার পথ রোধেই মূল্যসীমা আরোপের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ব্রিটিশ চ্যান্সেলর (অর্থমন্ত্রী) জেরমি হান্ট বলেন, ‘ইউক্রেনকে সমর্থনের জায়গা থেকে সরবে না যুক্তরাজ্য। এ ছাড়া পুতিনের তহবিল বন্ধ করতে নতুন উপায় সন্ধান করতে থাকবে। ’

news24bd.tv/মামুন