স্ত্রী হত্যা মামলায় গাজীপুর থেকে স্বামী গ্রেপ্তার
স্ত্রী হত্যা মামলায় গাজীপুর থেকে স্বামী গ্রেপ্তার

সংগৃহীত ছবি

স্ত্রী হত্যা মামলায় গাজীপুর থেকে স্বামী গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

শেরপুরের নকলায় স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ রাসেল মিয়া (৪২) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১। রোববার (৪ ডিসেম্বর) গাজীপুর সদর উপজেলার বাঘের বাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে র‌্যাব-১ গাজীপুর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর এ এস এম মাঈদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ব্যক্তি নকলা উপজেলার চন্দ্রকোণা ইউনিয়নের জানকিপুর গ্রামের বিষু মিয়ার মেয়ে শাহনাজ আক্তার (৩৫)।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার বৈরাগীরচালা এলাকার রাসেল মিয়া।

ভুক্তভোগীর স্বজনদের বরাত দিয়ে শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) হান্নান মিয়া জানান, প্রায় পাঁচ বছর আগে শাহনাজ ও রাসেলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন রাসেল। কিছুদিন পর থেকে পারিবারিক বিভিন্ন বিয়ষসহ স্থানীয় এনজিও’র কিস্তি নিয়ে তাদের মধ্যে কলহ শুরু হয়।

শনিবার (৩ ডিসেম্বর) সমিতির কিস্তির টাকা নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। ওই দিন রাত ৩টায় শাহনাজকে মারধর করে ঘরের বাইরে থেকে দরজায় তালা লাগিয়ে রাসেল পালিয়ে যান।

এদিকে সকালে ঘুম থেকে উঠে বাইরে থেকে দরজায় তালা ঝুলতে দেখে পরিবারের লোকজনের সন্দেহ হয়। এ সময় তালা ভেঙে ঘরে ঢুকে তারা শাহনাজকে মৃত অবস্থা পড়ে থাকতে দেখেন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। নকলা থানা পুলিশ রাসেলকে গ্রেপ্তারে তদন্ত করে জানতে পারে, তিনি গাজীপুরে অবস্থান করছে। পরে তারা র‌্যাব-১ গাজীপুর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের সহযোগিতা চান।

র‌্যাব-১ গাজীপুর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) জি এম মাজহারুল ইসলাম জানান, র‌্যাব তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় জানতে পারে গাজীপুর সদর উপজেলার বাঘের বাজার এলাকায় অবস্থান করছে রাসেল। পরে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে রাসেলকে গ্রেপ্তার করে।

জিজ্ঞাসাবাদে রাসেল জানান, গত শনিবার রাত ৩টায় আর্জেন্টিনার খেলা দেখে বাসায় ফেরেন। এ সময় কিস্তির টাকা জোগাড় করা নিয়ে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে তাকে লাথি মারে শাহনাজ। পরে ক্ষুব্ধ হয়ে রাসেলও তার বুকে ও মুখে এলোপাতাড়ি লাথি মারতে তাকে। এতে শাহনাজ ঘরের মেঝের সঙ্গে মাথায় আঘাত পেয়ে মারা যান। এটা বুঝতে পেরে রাসেল বাইরে থেকে ঘরের দরজায় তালা দিয়ে ভোরে গাজীপুরে চলে যান।

নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াদ মাহমুদ জানান, সুরতহাল প্রতিবেদনে শাহনাজ আক্তারের মুখ ও মাথায় একাধিক আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। তার মা বাদী হয়ে রাসেলকে আসামি করে মামলা করেন। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

news24bd.tv/হারুন