উত্তরের কামানের গোলা গেল দক্ষিণ কোরিয়ায়
উত্তরের কামানের গোলা গেল দক্ষিণ কোরিয়ায়

সংগৃহীত ছবি

উত্তরের কামানের গোলা গেল দক্ষিণ কোরিয়ায়

অনলাইন ডেস্ক

উত্তর কোরিয়া সামরিক মহড়া থেকে নিজেদের পূর্ব ও পশ্চিম উপকূলীয় সমুদ্র এলাকায় প্রায় ১৩০টি কামানের গোলা নিক্ষেপ করেছে। দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ সীমান্তের কাছে পিয়ংইয়ং সর্বশেষ সামরিক মহড়া থেকে এসব গোলা ছুড়েছে বলে সোমবার সিউলের সেনাবাহিনী জানিয়েছে। খবর  রয়টার্স।

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী বলেছে, উত্তরের ছোড়া কিছু গোলা সমুদ্র সীমানার কাছের বাফার জোনে অবতরণ করেছে।

এই মহড়াকে ২০১৮ সালে সীমান্তে উত্তেজনা সৃষ্টিকারী যেকোনো ধরনের কার্যকলাপ নিষিদ্ধ করে স্বাক্ষরিত আন্তঃকোরীয় সামরিক চুক্তির লঙ্ঘন বলে অভিহিত করেছে সিউল।

দক্ষিণের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই গোলাবর্ষণের ঘটনায় দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী উত্তরের কাছে কিছু সতর্কবার্তা পাঠিয়েছে।

তবে কামানের গোলা নিক্ষেপের বিষয়ে তাৎক্ষণকিভাবে কোনও প্রতিক্রিয়া জানায়নি উত্তর কোরিয়া। গত কিছুদিন ধরে দেশটি যুদ্ধবিমান উড়ানো, আর্টিলারি ইউনিটের ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ এবং মহড়াসহ ক্রমবর্ধমান সামরিক কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

দক্ষিণ কোরিয়া এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও চলতি বছর কোরীয় উপদ্বীপে সামরিক মহড়া বৃদ্ধি করে বলেছে, পারমাণবিক অস্ত্রে সজ্জিত উত্তর কোরিয়াকে ঠেকাতে তাদের এই মহড়ার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

২০১৮ সালে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন এবং দক্ষিণ কোরিয়ার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনের মাঝে কয়েক দফা বৈঠক হয়। ওই বৈঠকের পর দুই দেশের মাঝে ব্যাপক সামরিক চুক্তি (সিএমএ) স্বাক্ষরিত হয়।

এই চুক্তির পর আশার আলো দেখা গেলেও দুই কোরিয়ার মাঝে দীর্ঘদিনের অচলাবস্থার অবসানের আলোচনা থমকে গেছে। আর উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক মহড়া এবং বাফার জোনে শক্তি প্রদর্শন ওই চুক্তির ভবিষ্যৎ নিয়ে সন্দেহ সৃষ্টি করেছে।

news24bd.tv/আলী