জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ বাঁধনের
জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ বাঁধনের

সংগৃহীত ছবি

জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ বাঁধনের

অনলাইন ডেস্ক

আজমেরী হক বাঁধন ২০০৬ সালে লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় রানার আপ হয়ে শোবিজ জগতে যাত্রা শুরু করেন। এরপর টিভিসি, নাটক-ওটিটি থেকে শুরু করে ঢালিউডে অভিনয় করে জনপ্রিয় অভিনেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। এখন সমাজের বিশেষত নারীদের নানান অসঙ্গতি দেখলেই তিনি সরব। আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের 'রেহানা মরিয়ম নূর' সিনেমায় অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়েছেন।

পাশাপাশি পেয়েছেন আন্তর্জাতিক সম্মাননা। খবর আনন্দবাজার।

বাঁধন এখন দুই বাংলার জনপ্রিয় মুখ। তবে শুরুতে জীবন খুব একটা রঙিন ছিল না এই অভিনেত্রীর।

শ্বশুরবাড়িতে চূড়ান্ত অত্যাচারিত হতে হয়েছিল তাকে। রেহানা মরিয়ম নূর, খুফিয়া, রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেননি এমনই বেশ কিছু জনপ্রিয় সিনেমা-সিরিজের মূল চরিত্রে দেখা গেছে তাকে।

কয়েক বছর আগে শ্বশুরবাড়িতে চূড়ান্ত অত্যাচারের শিকার হন নায়িকা। সে যেন তার জীবনের বিভীষিকাময় অধ্যায়। বিয়ের পর জোর করে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করেন তার স্বামী।  

এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, কী পরিমাণ গার্হস্থ্য হিংসার শিকার হয়েছিলেন তিনি। এক সাক্ষাৎকারে বাঁধন বলেন, ‘আমার সাবেক শ্বশুরবাড়ির লোকজন পড়াশোনা করতে দিত না। বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ পুরো ছিন্ন করে দিতে বাধ্য করে। আমি মেনে নিয়েছিলাম। ভেবেছিলাম, এভাবেই হয়তো থাকতে হয়। অনেকেই উপদেশ দিয়েছিলেন, এসব সমস্যার সমাধান হলো বাচ্চা। কিন্তু কাউকে বোঝাতে পারিনি, আমি বৈবাহিক ধর্ষণের শিকার।

বর্তমানে মেয়েকে নিয়ে সুখে-শান্তিতে আছেন এ অভিনেত্রী। বাঁধনের জন্ম মুন্সীগঞ্জে। তিনি বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ থেকে দন্ত বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন।

news24bd.tv/আলী