ফুটবলাররা জানে তাদের একটি অস্ত্র আছে: নেইমারকে নিয়ে তিতে
ফুটবলাররা জানে তাদের একটি অস্ত্র আছে: নেইমারকে নিয়ে তিতে

সংগৃহীত ছবি

ফুটবলাররা জানে তাদের একটি অস্ত্র আছে: নেইমারকে নিয়ে তিতে

অনলাইন ডেস্ক

কিভাবে ফিরে আসতে হয়, প্রত্যাবর্তন রাঙাতে হয় দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে দেখিয়েছেন নেইমার। দলের প্রাণভোমরা ফেরার দিনে গোল উৎসব আর সাম্বা নৃত্যে মেতেছে ব্রাজিল। আর সেই নৃত্যে বেসামাল দ. কোরিয়া হেরেছে ৪-১ গোলে। অথচ গত ম্যাচেই ক্যামেরুনের বিপক্ষে অঘটনের শিকার হতে হয়েছে রেকর্ড পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের।

এদিন হঠাৎ করেই যেন বদলে গিয়েছে ব্রাজিল। দলের এমন প্রত্যাবর্তনের পেছনের কথা জানিয়েছেন দলটির কোচ তিতে।

ব্রাজিলের হেক্সা মিশনের পথে দলটির মূল শক্তির জায়গা আক্রমণভাগ। আর সেই আক্রমণভাগের নেতৃত্ব দিচ্ছেন পিএসজি তারকা নেইমার।

তাকে ঘিরেই বিশ্বকাপ শিরোপা ঘরে তোলার স্বপ্ন দেখছে ব্রাজিলিয়ান সমর্থকরা। অথচ প্রথম ম্যাচেই চোটে পড়েন দলের সেরা তারকা নেইমার। এরপর খেলতে পারেননি পরের দুই ম্যাচে। যেখানে নেইমারের অভাব বেশ ভুগিয়েছে তিতেকে। আক্রমণে গেলেও তাতে প্রাণ ছিল না; আগের দুই ম্যাচে। তবে নেইমার ফেরায় প্রাণ ফিরে পেয়েছে তিতের আক্রমণভাগ। দক্ষিণ কোরিয়া ম্যাচ যার উদাহরণ।

এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই নেইমারের নেতৃত্বে দক্ষিণ কোরিয়াকে চেপে ধরে ব্রাজিলের আক্রমণভাগ। ম্যাচের ৭মিনিটেই নেইমারের বাড়ানো বল জালে পাঠিয়ে ম্যাচে লিড নেয় ব্রাজিল। এরপর পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাজিল। এরপর এসেছে আর দুই গোল। যেখানেও পরোক্ষভাবে জড়িয়ে আছে নেইমারের নাম। হঠাৎ করেই যেন নেইমার ফেরায় বদলে গিয়েছে তিতের আক্রমণভাগের শক্তি। তিতের কণ্ঠেও ছিল এদিন নেইমার বন্ধনা।

নেইমার সম্পর্কে তিতে বলেন, ‘তিনি একজন টেকনিক্যাল রেফারেন্স। এটি টেকনিক্যাল লিডারশীপের উদাহরণ। যখন একটি দল বল নিয়ে খেলোয়াড়ের খোঁজ করে, তখন তারা জানে, মাঠে তাদের কাছে একটি অস্ত্র আছে। যে পার্থক্য করতে পারে। প্রত্যেকেরই নিজস্ব আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট্য রয়েছে। কিন্তু নেইমারই আমাদের দলের কেন্দ্র, যিনি অন্যদের ক্ষমতায়ন করেন। ’

এদিন পেনাল্টি থেকে গোল করে তাদের সাবেক কিংবদন্তি পেলে ও রোনালদোকে ছুঁয়েছেন নেইমার। তৃতীয় ব্রাজিল খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপের তিনটি সংস্করণে (২০১৪, ২০১৮ এবং ২০২২) গোল করেছেন নেইমার। এদিন নেইমারে মুগ্ধ হয়েছেন তিতের সহকারী সেজার সাম্পাইও। তিনি বিশ্বাস করেন নেইমার ফিরে আসায় মানসিক শক্তি বেড়েছে দলটির।

তিনি বলেন, ‘নেইমার অবশ্যই একটি প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা প্রদান করে। সে মাঠে পার্থক্য তৈরি করে। তিনি আমাদের দলের একজন চালিকাশক্তি। নেইমারের চোট দিয়ে কাজ করায় আমি আমাদের ফিজিওদের অভিনন্দন জানাতে চাই। ’

তিনি আরও বলেন, ‘নেইমার, তার প্রযুক্তিগত দক্ষতার পাশাপাশি অন্যদের অনুপ্রাণিত করে। আমরা তাকে ফিরে পেয়ে খুব খুশি। ম্যাচে সে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছে। সে সুস্থ হয়ে উঠেছে এবং নতুন চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত। তার সাথে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ সম্ভাবনায় পৌঁছাতে পারি। ’

উল্লেখ্য, আগামী ৯ ডিসেম্বর শুক্রবার রাত ৯টায় কোয়ার্টার ফাইনালে মাঠে নামবে রেকর্ড পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ গতবারের রানার্সআপ দল ক্রোয়েশিয়া।

news24bd.tv/আমিরুল