যুক্তরাষ্ট্রে নিউজ কনটেন্ট মুছে ফেলার হুঁশিয়ারি মেটার
যুক্তরাষ্ট্রে নিউজ কনটেন্ট মুছে ফেলার হুঁশিয়ারি মেটার

সংগৃহীত ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে নিউজ কনটেন্ট মুছে ফেলার হুঁশিয়ারি মেটার

অনলাইন ডেস্ক

শেয়ারকৃত নিউজ কনটেন্ট বা সংবাদ সম্পর্কিত লিংকের জন্য অর্থ পরিশোধ করতে হবে সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম ফেসবুককে, এমন আইন পাস হতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে। তবে এই আইন নিয়ে আপত্তি জানিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ফেসবুকের মাদার কোম্পানি মেটা। তারা বলছে, নতুন আইন পাস হলে যুক্তরাষ্ট্রের সকল নিউজ কনটেন্ট মুছে ফেলবে তারা। খবর বিবিসির

 

নতুন এই আইন পাস হলে, সংবাদ মাধ্যমগুলো ফেসবুকে নিজেদের শেয়ার করা কনটেন্টের জন্য অর্থ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে জোর দিয়ে কথা বলতে পারবে। গত বছর একই ধরণের আইন পাস হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ায়। তবে বছরের শেষ নাগাদ পর্যন্ত এই আইন বাতিল করে অস্ট্রেলীয় সরকার।

মেটা বলছে, বিভিন্ন নিউজ কনটেন্টের জন্য ট্রাফিক বেড়ে যায় ও আমাদের হিমশিম খেতে হয়।

নিজেদের লাভের জন্যই প্রকাশকরা তাদের কনটেন্টগুলোকে ফেসবুকে শেয়ার করে।

সাংবাদিকতা প্রতিযোগিতা ও সংরক্ষণ আইনের (জেসিপিএ) আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে নতুন এই আইন পাস হতে যাচ্ছে। পার্লামেন্টে এটি উত্থাপন করেন মিনেসোটা রাজ্যের সিনেটর অ্যামি ক্লুবচার। এতে অন্যান্য সিনেটররাও তাকে সমর্থন দেন।

সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, ফেসবুকে শেয়ার করা নিউজ কনটেন্টগুলো থেকে মেটা বিপুল পরিমাণ অর্থ উপার্জন করছে। তবে সেই অর্থের সামান্য পরিমাণ পাচ্ছে প্রকাশকরা। তবে মেটা বলছে, সংবাদ মাধ্যমগুলোর দাবি অবাস্তব।

মেটার মুখপাত্র অ্যান্ডি স্টোন বলেন, ‘যদি কংগ্রেস জাতীয় নিরাপত্তা আইনের অংশ হিসাবে একটি খারাপ বিবেচিত সাংবাদিকতা বিল পাস করে, তাহলে আমরা আমাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে সম্পূর্ণভাবে নিউজ কনটেন্টগুলো মুছে ফেলার বিষয়টি বিবেচনা করতে বাধ্য হবো। ’

news24bd.tv/মামুন