প্রেমিকার বাবার পিটুনিতে আহত তরুণের মৃত্যুর অভিযোগ
প্রেমিকার বাবার পিটুনিতে আহত তরুণের মৃত্যুর অভিযোগ

সংগৃহীত ছবি

প্রেমিকার বাবার পিটুনিতে আহত তরুণের মৃত্যুর অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় প্রেমিকার বাবার পিটুনিতে আহত সোহাগ আহমেদ (১৮) মারা গেছেন। মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন সোহাগের বাবা আখের আলী।

সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।  

সোহাগ আহমেদ উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নের নতুন ভোঁয়া এলাকার আখের আলীর ছেলে।

তিনি স্থানীয় বাবুল মিয়ার তাঁত কারখানায় শ্রমিকের কাজ করতেন।  

জানা যায়, সোহাগ আহমেদের সঙ্গে উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নের নতুন ভোঁয়া এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হাবুর মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ছেলের পরিবারের আর্থিক অবস্থা অপেক্ষাকৃত খারাপ হওয়ায় মেয়ের বাবা এ সম্পর্ক মেনে নেননি। গত ২১ নভেম্বর বাড়িতে গিয়ে সোহাগকে মারধর করেন তারা।

এ ঘটনায় আহত সোহাগ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার মারা যান।  

সোহাগের বাবা আখের আলী বলেন, ‘আমার ছেলের সঙ্গে সাবেক ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হাবুর মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। আমরা গরিব হওয়ায় এ প্রেমের সম্পর্ক মেনে নেননি তারা। আমাদের বাড়িতে এসে ২১ নভেম্বর আমার ছেলেকে মারধর করেন হাবিবুর। আজ (মঙ্গলবার) ভোরে আমার ছেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। ’ 

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোশারফ হোসেন শামীম বলেন, ‘তদন্তের মাধ্যমে ঘটনার সঙ্গে জড়িদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি। ’ 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত হাবিবুর রহমান হাবু বলেন, ‘আমার মেয়ের সঙ্গে সোহাগের প্রেমের সম্পর্ক ছিল এটা ঠিক। কিন্তু মারধরের কোনো ঘটনা ঘটেনি। ’ 

সাটুরিয়া থানার ওসি সুকুমার বিশ্বাস বলেন, এ ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মেয়ের বাবাকে থানায় আনা হয়েছে।  

news24bd.tv/হারুন