পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় চট্টগ্রামে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে
পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় চট্টগ্রামে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে

সংগৃহীত ছবি

পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় চট্টগ্রামে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ-ভারত তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে। আগামী ১০ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে মাঠে গড়াবে ম্যাচটি। এরপর রয়েছে একটি টেস্ট ম্যাচও। বাংলাদেশ-ভারত সিরিজকে কেন্দ্র করে পাঁচ স্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চট্টগ্রাম নগরীর পাঁচতারকা হোটেল রেডিসন ব্লু থেকে জহুর আহাম্মদ চৌধুরী স্টেডিয়াম পর্যন্ত নিরাপত্তা মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় মহড়ায় অংশ নিয়েছিল পুলিশের পাশাপাশি এ বাহিনীর বিশেষায়িত ইউনিট সোয়াট সদস্যরাও।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) কমিশনার কৃঞ্চপদ রায় বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের ক্রিকেট দল চট্টগ্রাম সফরের সময় পরিকল্পিতভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। পুলিশের পূর্ব অভিজ্ঞতা রয়েছে, চট্টগ্রামে ইতোপূর্বে আন্তর্জাতিক ম্যাচ হয়েছে।

সেই ম্যাচগুলোতে কঠোর নিরাপত্তার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছিলাম। সেটা ব্যবস্তবায়নও করেছি। সেই অভিজ্ঞতার আলোকে যে নিরাপত্তা নেয়া প্রয়োজন, সেই ধরনের নিরাপত্তা গ্রহণ করা হয়েছে। হোটেল থেকে মাঠে খেলোয়াড়দের আসা-যাওয়া থেকে শুরু করে সার্বক্ষণিক পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। র‌্যাব ও সোয়াটের পাশাপাশি নিয়োজিত থাকবে পুলিশের বিশেষায়িত ইউনিট।

ওয়ানডে সিরিজ শেষে আগামী ১৪ই ডিসেম্বর একই মাঠে গড়াবে একটি টেস্ট ম্যাচ। বাংলাদেশ-ভারত সিরিজের চট্টগ্রাম পর্বের টিকেট পাওয়া যাবে আগামী ৯ ডিসেম্বর নগরের বিটাক মোড় ও এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে। অবিক্রীত থাকলে ১০ ডিসেম্বর ম্যাচের দিন জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের বুথ থেকে টিকিট সংগ্রহ করতে পারবে ম্যাচ দেখতে আসা সমর্থকরা।

যেখানে গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড বা রুফটপ এক হাজার ৫০০ টাকা, আন্তর্জাতিক গ্যালারি এক হাজার টাকা, ক্লাব হাউজ ৫০০ টাকা, পূর্ব গ্যালারি ৩০০ টাকা ও পশ্চিম গ্যালারির টিকিটের মূল্য ২০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১-০তে এগিয়ে বাংলাদেশ।

news24bd.tv/আমিরুল