রাশিয়া-ইউক্রেনকে আলোচনায় বসার আহ্বান শেখ হাসিনার
রাশিয়া-ইউক্রেনকে আলোচনায় বসার আহ্বান শেখ হাসিনার

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

রাশিয়া-ইউক্রেনকে আলোচনায় বসার আহ্বান শেখ হাসিনার

অনলাইন ডেস্ক

যুদ্ধের ভয়াবহতার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘একাত্তরে যুদ্ধের ভয়াবহতার কথা আমরা বুঝতে পারি। বর্তমান রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ভয়াবহতা-বিভৎসতার কথা আপনারা উপলব্ধি করতে পারেন। আমরা যুদ্ধ চাই না, শান্তি চাই। আন্তর্জাতিক মহলকে আহ্বান জানিয়েছি, এই যুদ্ধ বন্ধ করতে হবে।

আমরা সেনাবাহিনী গড়ে তুলছি যুদ্ধ করার জন্য নয়, শান্তির জন্য। ’

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের ইনানী-পাটোয়ারটেক সৈকতে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক নৌশক্তি প্রদর্শন মহড়ার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। ২৮টি দেশ এতে অংশ নিচ্ছে।

আলোচনার মাধ্যমে যেকোনো সমস্যা সমাধান করা সম্ভব মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রেখেই আমরা সমুদ্র সীমার সমস্যার মীমাংসা করি।

ল্যান্ড বাউন্ডারি নিয়ে ভারতের সঙ্গে যে সমস্যা, তারও সমাধানও হয়েছে আলোচনার মাধ্যমে। কোনো ধরনের সমস্যা ছাড়ায় ভারতের সঙ্গে আমরা যেভাবে সিটমহল বিনিময় করি, তা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। ’   

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সকলের সাথে বন্ধুত্ব, কারো সাথে বৈরিতা নয়’ এই নীতি নিয়ে আমরা চলি। আমরা জাতি হিসেবে বৈশ্বিক সহাবস্থানের ওপর গুরুত্ব দিই। নিকট প্রতিবেশী ও আঞ্চলিক সব দেশের  সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আছে। শান্তি- সমৃদ্ধি এনে দেয়।  

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সমুদ্র পথে অবৈধ বাণিজ্য বন্ধ করতে হবে। সমুদ্রকে নিরাপদ রাখতে হবে। সমুদ্র রক্ষায় আমরা নৌবাহিনীকে আধুনিকায়ন করছি। কক্সবাজারে সমুদ্র গবেষণা প্রতিষ্ঠা করেছি। সমুদ্র খাতে ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। ’ 

তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক সীমানায় বিশাল জলরাশির মাধ্যমে বিশ্বের সব দেশের সঙ্গে বাংলাদেশ একই সূত্রে গাথা।  সমুদ্র আমাদের এক করেছে। ’ তিনি বলেন, ‘অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে ভারপুর আমাদের দেশ। সুজলা সুফলা আমাদের দেশ বিপুল সম্ভাবনার। ’ 

এ সময় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করার জন্য বাংলাদেশ নৌবাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  

news24bd.tv/ইস্রাফিল