ইউটিউব দেখে কমলা চাষে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন 
ইউটিউব দেখে কমলা চাষে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন 

ইউটিউব দেখে কমলা চাষে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন 

সাইফুর রহমান মিরণ, বরিশাল

মিষ্টি জাতের কমলা চাষে ভাগ্য ফেরানোর স্বপ্ন দেখছেন বরিশালের উদ্যোক্তারা। তারা বলছেন, উৎপাদন ভালো হওয়ায় দিন দিন বাড়ছে এ জাতের কমলা বাগানের সংখ্যা। প্রতিদিনই সেই বাগান দেখতে ভিড় করছেন দর্শনার্থীরা। কৃষি বিভাগ বলছে, তাদের ধারণাই ছিল না, দক্ষিণের মাটিতে এমন কমলা হবে।

 

সরেজমিনে দেখা গাছে, গাছে গাছে দুলছে হলুদ রঙের কমলা। ১০ থেকে ৩০টি কমলা দোল খাচ্ছে এক একটি থোকায়। অপরূপ এক দৃশ্য। দেখতে যেমন ভালো লাগছে, আর্থিকভাবেও চাষি হচ্ছেন লাভবান।

 

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার রাকুদিয়া গ্রামের আবু সুফিয়ান মো. পারভেজ নামে এক যুবক এ জাতীয় কমলা চাষ করে সাড়া ফেলেছেন। তার সাফল্য দেখে অনেকেই আগ্রহী হয়ে উঠেছেন এই কমলা চাষে।  

২০২০ সালে মাত্র ৫০ শতাংশ জমি নিয়ে চায়না কমলা চাষ শুরু করেন আবু সুফিয়ান। লাভবান হওয়ায় এরপর আরও জমিতে কমলা চাষ বাড়িয়ে দেন তিনি।  আবু সুফিয়ান জানান, কৃষিভিত্তিক ইউটিউব চ্যানেল দেখে কমলা চাষ শুরু করেন তিনি। তাকে দেখে ওই এলাকায় এখন অনেকেই এই জাতের কমলা চাষ করছেন। সমন্বিত কৃষি খামার গড়ে তুলতে চান তিনি।  

স্থানীয়রা জানান, বরিশালের মাটিতে কমলার ফলন দেখে তারা অভিভূত। এরই মধ্যে অনেকেই শুরু করেছেন কমলা চাষ। এতে এলাকায় যেমন বাড়ছে কর্মসংস্থান, লাভবান হচ্ছেন চাষিরা।    

বিষয়টি নিয়ে কথা হয় বরিশাল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোসাম্মৎ মরিয়মের সঙ্গে। তিনি বরিশালে কমলা চাষে আগ্রহী যুবকদের সবধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।  

news24bd.tv/ইস্রাফিল