অতিরিক্ত সময়ে গড়াল ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়া ম্যাচ
অতিরিক্ত সময়ে গড়াল ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়া ম্যাচ

সংগৃহীত ছবি

অতিরিক্ত সময়ে গড়াল ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়া ম্যাচ

অনলাইন ডেস্ক

প্রথমার্ধে গোলশূন্য ড্র’য়ে থাকা ম্যাচ দ্বিতীয়ার্ধেও দেখেনি ফল। নির্ধারিত সময়ে গোলশূন্য ড্র’য়ে শেষ হয়েছে ক্রোয়েশিয়া-ব্রাজিলের কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াই। প্রথমার্ধের মতো দ্বিতীয়ার্ধেও ব্রাজিলের বেশকিছু আক্রমণ প্রতিহত করে তিতের দলকে গোল বঞ্চিত রেখেছেন ক্রোয়েশিয়া গোলরক্ষক ডমিনিক লিভাকোভিচ। তার নৈপুণ্যেই ম্যাচ গড়িয়েছে অতিরিক্ত সময়ে।

যেখানে গোল না পেলে টাইব্রেকে গড়াবে ম্যাচের ভাগ্য।

প্রথমার্ধে গোলশূন্য ড্র’য়ের পর দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমেই আক্রমণে যায় ব্রাজিল। কাঁপিয়ে দেয় ক্রোয়াটদের রক্ষণভাগ। ব্রাজিলের বেশ কয়েকটি আক্রমণ প্রতিহত করে দেয় ক্রোয়াটদের রক্ষণভাগ।

এসময় নেইমারের শট হাতে লাগে ক্রোয়াট রক্ষণভাগের ফুটবলারের। পেনাল্টি আপিল করে ব্রাজিলের ফুটবলাররা। ভিএরআর চেকে দেখা যায় অনিচ্ছাকৃতভাবে বল হাতে লেগেছে ক্রোয়াট রক্ষণভাগের ফুটবলারের। পরে পেনাল্টি পায়নি ব্রাজিল। সে যাত্রায় রক্ষা পায় ক্রোয়েশিয়া।

ম্যাচের ৫২ মিনিটে গোলের উদ্দেশ্যে বল ক্রস করেন ইভান পেরিসিক। তবে শেষ পর্যন্ত সেই বলে মাথা ছোঁয়াতে পারেনি ক্রোয়েশিয়ার আক্রমণভাগ। ৫৪ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে যায় ব্রাজিল। বল নিয়ে গোলের উদ্দেশ্যে ছুটে যান নেইমার। সেই আক্রমণে কেঁপে উঠে ক্রোয়েশিয়া। তবে এ যাত্রায়ও দলের তাত্রা হয়ে ক্রোয়াটদের রক্ষা করেন গোলরক্ষক ডমিনিক লিভাকোভিচ। আরও একবার নেইমারকে প্রতিহত করেন তিনি।

আক্রমণে গতি না আসায়, ম্যাচের ৫৬ মিনিটে রাফিনহার পরিবর্তে অ্যান্টনি ও ৬৪ মিনিটে ভিনিসিয়াসের পরিবর্তে রুদ্রিগোকে নামায় তিতে। ৬৫ মিনিটে গোল করার সেরা সুযোগ পায় ব্রাজিল। গোলরক্ষককে একা পেয়েও সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি ব্রাজিলের আক্রমণভাগ। তিতের আক্রমণভাগকে আরও একবার হতাশ করেন লিভাকোভিচ। নিশ্চিত গোল হজম করা থেকে বাঁচান ক্রোয়াটদের।

৭৫ মিনিটে আরও একবার আক্রমনে যায় ব্রাজিল। নেইমারকে এ যাত্রায়ও পরাস্ত করেন লিভাকোভিচ। ক্রোয়াটদের রক্ষা প্রাচীর হয়ে একাই সামলেছেন ব্রাজিলের একের পর এক কঠিন আক্রমণ। ৭৯ মিনিটে ব্রাজিলকে ঠেকান আরও একবার। একের পর এক আক্রমণের পরও গোল না আসায় ৮৩ মিনিটে রিচার্লিসনকে বসিয়ে পেদ্রোকে নামিয়ে গতি আনার শেষ চেষ্টা চালান তিতে। তবে তাতেও কোনো কাজ হয়নি। সাফল্যের মুখ দেখেনি তিতের আক্রমণভাগের ফুটবলাররা। গোলশূন্য ড্র’য়ে শেষ হয় ম্যাচটি।

এর আগে, জাপানের বিপক্ষে নড়বড়ে ক্রোয়েশিয়াকে দেখা যায়নি কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলের বিপক্ষে। রেকর্ড পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে শুরু থেকেই বেশ পরিণত ফুটবল খেলেছে ক্রোয়াটরা। আক্রমণে গিয়ে কাঁপিয়ে দিয়েছে ব্রাজিলের রক্ষণভাগ। তবে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায়নি গতবারের রানার্সআপরা। পাল্টা আক্রমণে গিয়েছে ব্রাজিলও। তবে ক্রোয়াটদের রক্ষণ দুর্গ ভেদ করতে পারেনি তিতের দল।

শুরু থেকেই আক্রমণে যাওয়া ক্রোয়াটরা গোল করার সেরা সুযোগ পায় ম্যাচের ১৫ মিনিটে। মারিও প্যাসালিকের বাড়ানো বলে গোল করার সুযোগ তৈরি হয় ক্রোয়েশিয়ার। তবে ইভান পেরিসিক ছোঁয়াতে পারেননি পা। ফলে গোল হজম করা থেকে রক্ষা পায় ব্রাজিল।

ম্যাচের ১৯ মিনিটে গোল করার সুযোগ তৈরি হয় ব্রাজিলের। ক্রোয়েশিয়ার রক্ষণভাগের ফুটবলারদের নাচিয়ে গোল করার সুযোগ তৈরি করেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র। তবে শেষ পর্যন্ত জালের ঠিকানা খুঁজে পাননি তিনি। খানিক পরে নেইমারও নিয়ে ছিলেন শট। ক্রোয়াট গোলরক্ষকের কাছে পরাস্ত হতে হয়েছে তাকেও।

ম্যাচের ২৪ মিনিটে গোলের উদ্দেশ্যে ছুটছিলেন ক্রোয়েশিয়ান ফুটবলার জোসিপ জুরানোভিচ। তবে অবৈধভাবে তার পথ রোধ করেন ব্রাজিল রক্ষণ দানিলো। ফলে হলুদ কার্ড দেখতে হয়েছে তাকে।

৩২ মিনিটে গোল করার সুযোগ আসে ক্রোয়েশিয়ার। তবে সেই সুযোগ লাফিয়ে উঠে বল ঠেকিয়ে পণ্ড করে দেন ব্রাজিল গোলরক্ষক আলিসন।

ম্যাচের ৪০ মিনিটে ডি বক্সের ঠিক বাইরে ভিনিসিয়াসের পথ রোধ করে ক্রোয়াটরা। গোল করার সুযোগ পায় ব্রাজিল। বিপদজনক জায়গা থেকে শট নেন নেইমার। তবে খুব সহজেই নেইমারের নেওয়া সেই শট লুফে দেন ক্রোয়াট গোলরক্ষক ডমিনিক লিভাকোভিচ। এরপর আর গোল না হলে গোলশূন্য ড্র’য়ে শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।

news24bd.tv/আমিরুল