বন্য চিতার আক্রমণে ভারতে আহত ১৫
বন্য চিতার আক্রমণে ভারতে আহত ১৫

সংগৃহীত ছবি

বন্য চিতার আক্রমণে ভারতে আহত ১৫

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের আসাম রাজ্যে একটি বন্য চিতাবাঘের আক্রমণে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার জোড়হাট শহরের উপকণ্ঠে রেইন ফরেস্ট রিসার্চ ইন্সটিটিউটের বন থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় প্রথমে কর্মকর্তাদের উপর হামলা চালায় চিতাবাঘটি। এরপর শহরে ডুকে আরও ১৫ জনকে কামড়ায় বাঘটি। তবে আহত সবাই দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

উসকানি না দিলে প্রাণীরা সাধারণত মানুষকে আক্রমণ করে না, তবে মঙ্গলবার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা ভয়ঙ্কর ফুটেজে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র। কাঁটাতারের বেড়ার উপর দিয়ে লাফিয়ে উঠে মানুষকে কামড়াচ্ছে চিতাবাঘটি।

বন কর্মকর্তাদের মতে, প্রাণীটি ক্যাম্পাস থেকে পালিয়ে ঘন চা বাগানের গাছপালার আড়ালে পার্শ্ববর্তী গ্রামে প্রবেশ করার আগে জোড়হাট শহরের উপকণ্ঠে রেইন ফরেস্ট রিসার্চ ইন্সটিটিউটের বন কর্মকর্তাদের উপর আক্রমণ করেছিল।

জোরহাটের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রঞ্জিত কনওয়ার বলেন, ‘কিছু বাসিন্দাদের উঠানে ঘোরাফেরা করছিল চিতাবাঘটি।

আহতদের মধ্যে অনেককে কামড় দেওয়া হয়েছিল এবং তাদের হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন ছিল কিন্তু তারা এখন বিপদমুক্ত বলে মনে হচ্ছে।

দুই দিনের অনুসন্ধানের পর, গত বৃহস্পতিবার প্রাণীটিকে সফলভাবে শান্ত করা হয়। এরপর মেডিকেল পরীক্ষা শেয়ে প্রাণীটিকে পুনরায় আসামের কাজিরাঙ্গা জাতীয় উদ্যানে ছেড়ে দেওয়া হয়।  

উল্লেখ্য, প্রাণীটি খাবারের সন্ধানে বন থেকে পালিয়েছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। এছাড়াও ভারতে ব্যাপকভাবে বন উজাড় করা এবং পশুর আবাসস্থল দখলের কারণে মানব-প্রাণী সংঘাত বাড়ছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো। ২০২১ সালে মানুষ-প্রাণীর সংঘর্ষে ভারতে প্রায় ৫০০ জন মানুষ ও ১০০টি হাতি মরা গেছে বলে জানিয়েছে দেশটির পরিবেশ মন্ত্রী ভূপেন্দ্র যাদব।

news24bd.tv/আমিরুল

এই রকম আরও টপিক