খুপড়ি ঘরে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে প্রতিবন্ধী ইয়াছিন
খুপড়ি ঘরে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে প্রতিবন্ধী ইয়াছিন

দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ইয়াছিন

খুপড়ি ঘরে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে প্রতিবন্ধী ইয়াছিন

অনলাইন ডেস্ক

নড়াইলের লোহাগড়ায় পলিথিনের নিচে পরিবারের ১০ সদস্য নিয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ইয়াছিন। এ দৃশ্য উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামে।

স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, মো. ইয়াছিন মিয়া একজন দৃষ্টি প্রতিবন্ধী। তিনি এর আগে দিঘলিয়া ইউনিয়নের নোয়াগ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

পরে লক্ষীপাশা ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামের হিমায়েত মাস্টারের সাথে সখ্যতা গড়ে উঠে তার। মানবিক কারণে হিমায়েত মাস্টার ৫ বছর আগে বসবাস করার জন্য ইয়াছিনকে ৪ শতক জমি দলিলমুলে লিখে দেন। সেই থেকে ইয়াছিন পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নোয়াপাড়া গ্রামে ওই জমির উপর পলিথিন দিয়ে খুপড়ি ঘর করে বসবাস করছেন।

ল

ইয়াছিনের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, '১২ বছর আগে স্ট্রোক জনিত কারণে আমার চোখের দৃষ্টিশক্তি ৭০ শতাংশ হারিয়ে ফেলেছি।

আমার পরিবারে ১০ জন সদস্য। আমি ভ্যান চালক। কোন বড় রাস্তায় ভ্যান চালাই না। তারপরও যাত্রীরা আমার ভ্যানে উঠতে চাই না কারণ আমি চোখে দেখিনা। আমি চোখে না দেখার কারণে ৩ বছর পূর্বে ভ্যানসহ রাস্তার খাদে পড়ে গিয়েছিলাম। আমি তিন বেলা দুমুঠো ভাত খেতে পারছিনা। পলিথিন দিয়ে খুপরি ঘর তৈরি করে বসবাস করছি। আমার ছেলেটা রাজমিস্ত্রীর জোগালে হিসেবে কাজ করে বর্তমান সংসার চালাচ্ছে। আমি প্রধানমন্ত্রী ও উপজেলা প্রশাসন ও সমাজের দানবীরদের কাছে বসবাসের জন্য ঘরের দাবি করছি। যদি কেউ একটি ঘর করে দেয় তাহলে বাকি জীবনটা স্বস্তিতে কাটাতে পারবো'।

লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আজগর আলী মুঠোফোনে বলেন, এখন যাদের জায়গা নেই তাদেরকে ঘর দেয়া হচ্ছে। ইয়াছিনের যেহেতু জায়গা আছে পরবর্তীতে ঘর আসলে যাচাই-বাছাই করে তাকে ঘর দেয়া হবে।

news24bd.tv/রিমু