যুক্তরাষ্ট্রে টর্নেডোতে অন্তত ৬ জন নিহত
যুক্তরাষ্ট্রে টর্নেডোতে অন্তত ৬ জন নিহত

সংগৃহীত ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে টর্নেডোতে অন্তত ৬ জন নিহত

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণপূর্ব অঙ্গরাজ্য অ্যালাবামায় টর্নেডোর আঘাতে অন্তত ছয় জন নিহত হয়েছেন। এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। স্থানীয় কর্তৃপক্ষের বরাতে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি।

সংবাদ মাধ্যমটি জানায়, বৃহস্পতিবার জাতীয় আবহাওয়া সংস্থা (এনডাব্লিউএস) দক্ষিণ আমেরিকাজুড়ে ৩৫টিরও বেশি টর্নেডোর কথা জানিয়েছে।

যা তিন কোটিরও বেশি মানুষকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে।

এনডাব্লিউএস বলছে, অ্যালবামার সেলমারে প্রলয়ঙ্করী টর্নেডোতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। চারটি স্টেটের কয়েক হাজার বাসিন্দা বিদ্যুৎ পরিষেবা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

বিবিসি বলছে, অ্যালাবামা, জর্জিয়া, টেনেসি ও ক্যারোলোনিয়ার দেড় লাখেরও বেশি বাসিন্দা বিদ্যুৎহীন রয়েছে।

বৈরি আবহাওয়া চলমান থাকবে।

টর্নেডোতে যেসব মৃত্যু হয়েছে তার বেশিরভাগই মন্টগোমেরি ও সেলমা শহরের মাঝামাঝিতে অবস্থিত অটাউগা কাউন্টিতে ঘটেছে।  টর্নেডোর জন্য আগে থেকেই কাউন্টিটিতে জরুরী অবস্থার ঘোষণা দেয় এনডাব্লিউএস। এক টুইট বার্তায় সংস্থাটি থেকে বলা হয়, ‘এটি একটি জীবন হুমকির পরিস্থিতি। অবিলম্বে আশ্রয় নিন!!’

কাউন্টিটির প্রধান কর্নার বুস্টার বলেন, ‘আমাদের এখানে একাধিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। আমরা এখনও নিহতদের লাশ খুঁজছি। ’

টর্নেডোর আঘাতে ভয়াবহ ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন সেলমার মেয়র জেমস পারকিন্স জুনিয়র। এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘বহু ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা হচ্ছে। ’ বাসিন্দাদের সেলমার আশেপাশে যে কোনো ক্ষতির ছবিও পাঠাতে বলেছেন তিনি।

সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে দেখা যায়, সেলমার বেশিরভাগ রাস্তা বিদ্যুতের লাইন এবং গাছ ভেঙে পড়ার কারণে বন্ধ রয়েছে। সেলমা কর্মকর্তারা সন্ধ্যা থেকে ভোর পর্যন্ত কারফিউ জারি করে নগরীতে। বাসিন্দাদের সর্তকবার্তাও পাঠানো হয়।

news24bd.tv/মামুন