মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ করা মূল চ্যালেঞ্জ: ডিসিসিআই
মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ করা মূল চ্যালেঞ্জ: ডিসিসিআই

দেশে আয় বৈষম্য বাড়ায় সংকটের আশঙ্কা ক্যাবের

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ করা মূল চ্যালেঞ্জ: ডিসিসিআই

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা বড় চ্যালেঞ্জ মনে করছে শিল্প মালিকদের সংগঠন ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি -ডিসিসিআই ও ভোক্তা সংগঠন ক্যাব। ব্যয় কমাতে কর্মী ছাঁটাই নাকি মুনাফার হার কমানো, তা শিল্প মালিকরাই ঠিক করবে বলে মন্তব্য করেছেন ডিসিসিআই সভাপতি।

অন্যদিকে মধ্যবিত্ত এবং নিম্ন মধ্যবিত্তদের জন্য বিশেষ সামাজিক সুরক্ষা স্কিম গঠনের সুপারিশ করেছে কনসিউমার অ্যাসোসিয়েশন -ক্যাব। আলাদা অনুষ্ঠানে সংগঠন দুটি এসব মত তুলে ধরে।

পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসেবে বর্তমানে মূল্যস্ফীতি প্রায় ৯ শতাংশ। তবে বাজারের বাস্তব চিত্র এর চেয়ে ভয়াবহ। প্রতিটি পণ্যের দাম আকাশ ছোঁয়া, যা প্রতিনিয়ত নিম্ন ও মধ্যবিত্তদের নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে।  

রাজধানীর মতিঝিলে নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে শিল্প মালিকদের সংগঠন ডিসিসিআই সভাপতি ব্যারিস্টার সামীর সাত্তার দাবি করেন, তারা বাজারে প্রতিযোগিতার সক্ষমতা হারাচ্ছেন।

গ্যাস, বিদ্যুৎ ও কাঁচামালের দাম বাড়ায় বেড়েছে উৎপাদন ব্যয়। তা কমাতে কর্মী ছাটাইয়ের কথাও ভাবছে কোন কোন প্রতিষ্ঠান।

অন্যদিকে অন্য এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে ক্যাব সভাপতি ড. গোলাম রহমান বলেন, মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধির কারণে টিকে থাকার লড়াই বেড়েছে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের পরিবারগুলোর। শহরগুলোতে সামাজিক সুরক্ষা স্কিম বাড়ানোর পাশাপাশি ওএমএস স্কিমের আওতা বাড়ানোর সুপারিশ তাদের।

আসছে রমজানে পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে বাজার মনিটরিং জোরদারের দাবি ভোক্তাদের। অন্যদিকে এলসি মার্জিন কমানোর সুপারিশ শিল্প মালিকদের।

news24bd.tv/FA