রোহিত-গিলের সেঞ্চুরি, ভারতের কাছে ধবলধোলাই নিউজিল্যান্ড
রোহিত-গিলের সেঞ্চুরি, ভারতের কাছে ধবলধোলাই নিউজিল্যান্ড

সংগৃহীত ছবি

রোহিত-গিলের সেঞ্চুরি, ভারতের কাছে ধবলধোলাই নিউজিল্যান্ড

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের কাছে সিরিজের শেষ ওয়ানডে ম্যাচেও হারলো নিউজিল্যান্ড। আজ মঙ্গলবার ইন্দোরের হোলকার ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে রোহিত শর্মা এবং শুভমন গিলের ঝোড়ো সেঞ্চুরিতে ৯ উইকেটে ৩৮৫ রানের বিশাল পুঁজি পায় ভারত। সেই রান তাড়া করতে নেমে নিউজিল্যান্ড থামে ২৯৫ রানেই। ফলে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতে সফরকারীদের হোয়াইটওয়াশ করলো স্বাগতিক ভারত।

প্রথম দুই ওয়ানডে হেরে আগেই সিরিজ খোয়ানো নিউজিল্যান্ড তৃতীয় ওয়ানডেতে বিশাল রান তাড়া করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই হারায় উইকেট। ফিন অ্যালেন ফেরেন শূন্য রানেই। এরপর হেনরি নিকোলস নিয়ে ১০৬ রানের বড় জুটি গড়েন ডেভন কনওয়ে। ৪০ বলে ৪২ রান করে নিকোলস ফিরলে ভাঙে এ জুটি।

তবে কনওয়ে খেলছিলেন দারুণ। নিকোলসের পর ডেরল মিচেলকে নিয়ে লড়ে যান তিনি। তুলে নেন সেঞ্চুরি।

এর মাঝেই লক্ষ্য থেকে বিচ্যুত হয়ে পড়ে নিউজিল্যান্ড। ব্যক্তিগত ২৪ রানে মিচেল ফেরার পর মুহূর্তের মধ্যেই টম লাথাম এবং গ্লেন ফিলিপসকে হারায় কিউইরা। তিন ব্যাটারকেই ফেরান শারদুল ঠাকুর। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের তৃতীয় শতক তুলে নেওয়ার পর কনওয়ে ফেরেন ১৩৮ রান করে। শেষদিকে মিচেল ব্রেসওয়েলের ২৬ এবং মিচেল স্যান্টনারের ৩৪ রান কেবল হারের ব্যবধানই কমায়।

নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপের মেরুদণ্ড ভেঙে দেওয়ায় ম্যাচ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন শারদুল। ৪৫ রানে ৩ উইকেট নেন এই মিডিয়াম পেসার। ৩ উইকেট পেয়েছেন কুলদীপ যাদবও। তিনি রান খরচ করেছেন ৬২। আরেক স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহাল ২ উইকেট তুলে নেন ৪৩ রান দিয়ে। একটি করে উইকেট পেয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া এবং উমরান মালিক।

এর আগে ব্যাটিং করতে নেমে শুরু থেকেই ঝোড়ো গতিতে রান তুলতে থাকেন রোহিত শর্মা এবং শুভমন গিল। একদিনের ক্রিকেটে রীতিমতো টি২০ খেলছিলেন ভারতের এ দুই ওপেনার। প্রথম ১০ ওভারেই স্কোরবোর্ডে ৮২ রান তুলে ফেলেন রোহিত-গিল। ১০০ রান আসে মাত্র ৭৬ বলে। পাল্লা দিয়ে রান তোলা রোহিত-গিল সেঞ্চুরিও তুলে নেন একই ওভারে। ২৬তম ওভারের তৃতীয় বলে একদিনের ক্রিকেটে ৩০তম সেঞ্চুরি তুলে নেন রোহিত। ৮৩ বলে ১১০০ দিন পর সেঞ্চুরি তুলে নেন ভারত অধিনায়ক। ওই ওভারের শেষ বলে চার মেরে সেঞ্চুরি তুলে নেন গিলও। ওয়ানডেতে শেষ চার ইনিংসে এটা এই তরুণ ওপেনারের তৃতীয় শতরান। যার মধ্যে একটিতে তিনি ডাবল সেঞ্চুরিতে রূপ দেন।

রোহিত-গিল শতরানের মাইলফলকে পৌঁছানোর পরেই উইকেট দিয়ে বসেন। ৮৫ বলে ১০১ রান করে ফেরেন রোহিত। কিছুক্ষণ পর ব্যক্তিগত ১১২ রানে ফেরেন গিলও। বিরাট কোহলি ঝোড়ো গতিতে খেলতে গিয়ে ফেরেন ৩৬ রান করে। এর আগে ১৭ রান করা ঈশান কিষানও ফেরেন সাজঘরে। এরপর হার্দিক পান্ডিয়া ছাড়া কেউই সেভাবে বড় ইনিংস খেলতে পারেননি।

সাজঘরে ফেরার আগে হার্দিক পান্ডিয়ার ব্যাট থেকে আসে ৫৪ রান। এছাড়া সূর্যকুমার যাদব ১৪, ওয়াশিংটন সুন্দর ৯ এবং শারদুল ঠাকুর করেন ২৫ রান। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে তিনটি করে উইকেট নেন জ্যাকব টাফি এবং ব্লায়ের টিকনার। টাফি অবশ্য বেশ খরুচে বোলিং করেন। ১০ ওভারে দেন ১০০ রান। টিকনার দেন ৭৬ রান।

news24bd.tv/সাব্বির