ঢাবি উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরলেন ছাত্রীরা
ঢাবি উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরলেন ছাত্রীরা

সংগৃহীত ছবি

ঢাবি উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরলেন ছাত্রীরা

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কুয়েত মৈত্রী হলের প্রাধ্যক্ষ নাজমুন নাহারের পদত্যাগের দাবিসহ বেশ কিছু দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা ছাত্রীরা উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরেছেন। রাত সাড়ে ১১টার দিকে তারা হলে ফিরে যান।

ছাত্রীদের অভিযোগগুলোর মধ্যে আছে আসন বরাদ্দে কালক্ষেপণ করা, হলের ক্যানটিনে খাবারের মানোন্নয়নে উদ্যোগ না নেওয়া, শিক্ষার্থীদের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে উদাসীনতা, নানা আশ্বাস দিয়ে পরে তা পূরণ না করা ইত্যাদি।

এসব অভিযোগে বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) রাত সাড়ে নয়টার দিকে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন কুয়েত মৈত্রী হলের অর্ধশত শিক্ষার্থী।

কিছুক্ষণ পর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী প্রাধ্যক্ষের সঙ্গে কথা বলে ছাত্রীদের সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ছাত্রী বলেন, ‘সর্বশেষ আন্তঃহল ক্রিকেট টুর্নামেন্টের অনুশীলনে ছাত্রীদের ন্যূনতম সহযোগিতা করা হয়নি। খেলার জন্য ছাত্রীদের দেওয়া হয়েছে স্কুলের বাচ্চাদের কেডস। অথচ অন্য হলের ছাত্রীরা ভাল মানের জুতা পরে খেলায় অংশ নিয়েছেন।

মাঠে সবাই আমাদের নিয়ে হাসাহাসি করেছে। ’

সরস্বতীপূজা প্রসঙ্গে ক্ষুব্ধ আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ছাত্রীদের হলগুলোতে সরস্বতীপূজার আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিটি হলে আলোকসজ্জা, সাউন্ড সিস্টেম সব ক্ষেত্রে প্রাধ্যক্ষ ও আবাসিক শিক্ষকদের উপস্থিতি ছিল। কিন্তু আমাদের হলের শিক্ষকরা আসেননি। আলোকসজ্জা তো দূরের কথা, সাজানোর কোনো খবর নেই। এই পরিস্থিতিতে আমরা উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছি।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে প্রাধ্যক্ষ নাজমুন নাহারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করেও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান গণমাধ্যমকে জানান, ছাত্রীদের দাবিগুলো যৌক্তিক মনে হয়েছে। এগুলোর সমাধান করা কঠিন কোনো কাজ নয়।

news24bd.tv/হারুন