২০ মে ,সোমবার, ২০১৯

শিরোনাম

> বাংলাদেশ

>> অপরাধ

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

৮ সেপ্টেম্বর ,শনিবার, ২০১৮ ১২:২৭:৩৯

ব্যান্ডেজ রেখেই প্রসূতির পেটে সেলাই!


ব্যান্ডেজ রেখেই প্রসূতির পেটে সেলাই!

প্রসূতি তাহমিনা খাতুন


যশোরের চৌগাছার পল্লবী ক্লিনিকে এক প্রসূতির পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রেখে সেলাইয়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাক্তার সুব্রত কুমার বাগচী ও ডাক্তার নাহিদ সিরাজ ওই ক্লিনিকে রোগীর সিজারিয়ান অপারেশন করেন।

ভুক্তভোগীর নাম তাহমিনা খাতুন (২৫)। তিনি চৌগাছা উপজেলার দিঘলসিংহা গ্রামের জয়নাল আবেদিনের মেয়ে।তাহমিনার স্বামীর নাম আলমগীর হোসেন।

রোগীর স্বজনেরা জানান, সিজারের দেড় মাস পরও রোগীর রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় ক’দিন আবারো তাকে পল্লবী ক্লিনিকে নেয়া হয়।

সেখানে তার জরায়ু নাড়ি দু’বার ওয়াস করা হয়। এক পর্যায়ে জরায়ুমুখ দিয়ে রক্তাক্ত মফ (ব্যান্ডেজ) বের হয়।

এ সময় ক্লিনিক মালিক রোগীর স্বজনদের আশ্বস্ত করে জানান, ‘তেমন কোনো সমস্যা নেই। বাড়ি নিয়ে যান ঠিক হয়ে যাবে।’তবে অবস্থার কোনো পরিবর্তন না হওয়ায় স্থানীয় এক গাইনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শে যন্ত্রণায় কাতর তাহমিনাকে গতকাল (৭ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার) যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তাহমিনার মা জাহানারা খাতুন ও স্বামী আলমগীর হোসেন বলেন, ‘গত ২৪ জুলাই চৌগাছা শহরের পল্লবী ক্লিনিকে তাহমিনাকে ভর্তি করা হয়। সেখানে চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের গাইনি চিকিৎসক সুব্রত কুমার বাগচী ও নাহিদ সিরাজ সিজার করেন।’

তারা বলেন, ‘সিজারের পর ওষুধ দিয়ে বাড়িতে নেয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা এবং আস্তে আস্তে রক্তক্ষরণ বন্ধ হয়ে যাবে বলে জানান। কিন্তু দেড় মাস হতে চললেও প্রসূতির রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় ক্লিনিক মালিককে জানানো হয়।’

‘এরপর গত রোববার (২ সেপ্টেম্বর) তাকে আবারো ওই ক্লিনিকে নেয়া হয়। এ সময় ক্লিনিক মালিক মিজানুর রহমান তাদের কাছ থেকে বন্ড সই নিয়ে তাহমিনার জরায়ু নাড়ি দু’বার ওয়াস করান। পরে বাথরুমে গেলে তার জরায়ু মুখ দিয়ে অপারেশনের সময়ে ব্যবহার করা রক্তাক্ত মফ (ব্যান্ডেজ) পড়ে। সেটি নিয়ে হাসপাতাল মালিককে দেখালে, তিনি সেটি নিয়ে নেন।’

তবে তাহমিনার স্বামী আলমগীর ব্যান্ডেজের ছবি নিজের মোবাইলের ক্যামেরায় ধারণ করে রাখেন।

শুক্রবার চৌগাছার একটি প্রাইভেট চেম্বারে গাইনি কনসালট্যান্ট ডাক্তার রবিউল ইসলামকে তাহমিনাকে দেখানো হয়।চিকিৎসক রোগীর স্বজনদের বলেন, রোগীর পেটের মধ্যে আরও কিছু থেকে যেতে পারে।এজন্য পিপি করাতে রোগীকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেন তিনি।

তাহমিনার মা জাহানারা খাতুন বলেন, ‘চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছিলাম। সেখানকার চিকিৎসকরা বলেছিলেন সিজারের ডাক্তার নেই। বাইরে কোথাও নিয়ে যান, রোগীর অবস্থা ভাল না। তাই হাতের কাছে পল্লবী ক্লিনিকে নিয়ে গিয়েছিলাম। ৮ হাজার টাকা খরচায় মেয়ের সিজার করা হয়। কিন্তু দেড় মাসেও রক্তক্ষরণ বন্ধ হয়নি। মেয়ের পেটে প্রচণ্ড ব্যথা। অপারেশন আর ওষুধ বাবদ এ পর্যন্ত ৩০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। কিন্তু মেয়ে আমার সুস্থ হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘ক্লিনিক মালিক প্রেসক্রিপশন ও রিপোর্টের কাগজপত্র রেখে দিয়েছেন। মেয়ে এখন সদর হাসপাতালে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। আমরা এর বিচার চাই।’

তবে পল্লবী ক্লিনিকের মালিক মিজানুর রহমান তাহমিনার পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রেখে সেলাইয়ের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন।

তিনি বলেন, ‘নরমাল ডেলিভারির রোগীরও রক্তক্ষরণ হতে পারে। ফলে সিজারিয়ান রোগীর রক্তক্ষরণ অস্বাভাবিক নয়। রোগীকে ক্লিনিকে আনা হয়েছিল, তার চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।’

তবে যোগাযোগের চেষ্টা করেও সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের দেখা মেলে নি।


অরিন▐ NEWS24


ছাত্রী ও শিক্ষকের স্ত্রীদের সঙ্গে যৌন হয়রানি!
ছাত্রলীগ নেতার আঙ্গুল কর্তন: গ্রেপ্তার ১
রংপুরে বসুন্ধরা ও কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের ইফতার
বান্দরবানে নিহত সেনার দাহ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায়
'কৃষকদের বাঁচাতে চাল আমদানি বন্ধ করা হবে'
স্কোয়াডে আন্দ্রে রাসেল, রিজার্ভ বেঞ্চে ব্রাভো ও পোলার্ড
খুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলে নতুন কর্মসূচি
অডিটের নামে কলেজ শিক্ষকদের বেতন কর্তন
‘অবাধ তথ্য মানুষের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে’
সঙ্গীত শিল্পী ফারহানার আত্মহত্যা
এবার এস-৫০০ কিনতে চায় তুরস্ক
এসএ পরিবহনের অফিস থেকে ইয়াবা উদ্ধার
বাড়াবাড়ি করবেন না, যুক্তরাষ্ট্রকে চীন
১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলির ফল প্রকাশ
‘বিভিন্ন শহরে ‘ব্লক রেইড’ দেওয়া হবে’
‘র‌্যাঙ্কিংয়ে হাজারের মধ্যেও নেই ঢাবি’
মুক্তিযোদ্ধার বয়স সাড়ে ১২ বছর নিয়ে পরিপত্র অবৈধ
'কৃষক রক্ষা না করলে বাংলাদেশে অভিশাপ নেমে আসবে'
প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস অপেক্ষায় ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা
অপহরণের পর আ’লীগকর্মীকে গুলি করে হত্যা
ছাত্রী ও শিক্ষকের স্ত্রীদের সঙ্গে যৌন হয়রানি!
ছাত্রলীগ নেতার আঙ্গুল কর্তন: গ্রেপ্তার ১
রংপুরে বসুন্ধরা ও কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের ইফতার
বান্দরবানে নিহত সেনার দাহ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায়
'কৃষকদের বাঁচাতে চাল আমদানি বন্ধ করা হবে'
স্কোয়াডে আন্দ্রে রাসেল, রিজার্ভ বেঞ্চে ব্রাভো ও পোলার্ড
খুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলে নতুন কর্মসূচি
অডিটের নামে কলেজ শিক্ষকদের বেতন কর্তন
‘অবাধ তথ্য মানুষের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে’
সঙ্গীত শিল্পী ফারহানার আত্মহত্যা
এবার এস-৫০০ কিনতে চায় তুরস্ক
এসএ পরিবহনের অফিস থেকে ইয়াবা উদ্ধার
বাড়াবাড়ি করবেন না, যুক্তরাষ্ট্রকে চীন
১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলির ফল প্রকাশ
‘বিভিন্ন শহরে ‘ব্লক রেইড’ দেওয়া হবে’
‘র‌্যাঙ্কিংয়ে হাজারের মধ্যেও নেই ঢাবি’
মুক্তিযোদ্ধার বয়স সাড়ে ১২ বছর নিয়ে পরিপত্র অবৈধ
'কৃষক রক্ষা না করলে বাংলাদেশে অভিশাপ নেমে আসবে'
প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস অপেক্ষায় ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা
অপহরণের পর আ’লীগকর্মীকে গুলি করে হত্যা
প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতল বাংলাদেশ
প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, গৃহবধূকে অর্ধনগ্ন করে লাঠিপেঠা 
যুক্তরাষ্ট্র-ইরান উত্তেজনা চরমে, ভয়ে ইসরাইল
কাজের মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা, ধরা শিক্ষা কর্মকর্তা!
ভাতিজির মেয়েকে ধর্ষণ করে ধরা বিএনপি নেতা
‘ব্রেকআপের পর মনে হয়েছিল আমি বাঁচব না’
কেন ইরাক থেকে লোকজন সরিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র?
পুতুল খেলার কথা বলে শিশু ধর্ষণচেষ্টা!
কমিটি নিয়ে ছাত্রলীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১০
মাদারীপুরের নিহত ও নিখোঁজদের বাড়িতে মাতম
আহতদের না দেখেই ফিরলেন শোভন-রাব্বানী!
শিক্ষার্থী মারধরের সেই নেত্রী শায়লার ছবি ভাইরাল 
ইরান ইস্যুতে পাক জেনারেলের হুঁশিয়ারি
'প্রিয় নেত্রী পরম মমতাময়ী প্রতি ঋণের বোঝা আরও বেড়ে গেল'
বাড়াবাড়ি করবেন না, যুক্তরাষ্ট্রকে চীন
পরকীয়া প্রেমে প্রতিবাদ করায় অন্তঃসত্বা নারীকে খুন
চুল পড়া বন্ধ করে ৪ খাবার
‘বিশ্বকাপে বাংলাদেশ শক্তিশালী দল’
চোট পেয়ে মাঠ থেকে উঠে গেলেন সাকিব
শমী কায়সার পেলেন সরকারি অনুদানের ৬০ লাখ টাকা

সব খবর