২৩ জানুয়ারী , বুধবার, ২০১৯

শিরোনাম

> বাংলাদেশ

>> অপরাধ

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

১২ সেপ্টেম্বর , বুধবার, ২০১৮ ২০:৪০:০৬

শপিং করতে গিয়ে মাদক কারবারীর সাথে পরিচয়, অতঃপর...


শপিং করতে গিয়ে মাদক কারবারীর সাথে পরিচয়, অতঃপর...

এক নারী মাদকসেবী


বছর দুয়েক আগে ঢাকা নিউ মার্কেটে কেনাকাটা করতে যান গৃহবধূ সাদিয়া ইসলাম মায়া। সেখানে দুই নারীর সাথে পরিচয় হয় তার। ফোন নম্বরও আদান-প্রদান হয়। কিন্তু এই পরিচয় যে সাদিয়ার জীবনকে অন্ধকারে ঠেলে দিবে তখন তা ঘুনাক্ষরেও বুঝতে পারেননি সাদিয়া। গৃহবধূ সাদিয়া এখন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক। তিনি এখন ঢাকা শহরের শীর্ষ মাদক সম্রাজ্ঞী।

কীভাবে সাদিয়া এই অন্ধকার জগতে পা বাড়ালেন? সেই ঘটনা অনেকটা সিনেমার মতো। অর্থ-বিত্তের আকাঙ্ক্ষা সবারই থাকে। ছিল সাদিয়ারও। কেউ সৎ পথে দীর্ঘদিন পরিশ্রম করে সম্পদ গড়েন, কেউ অসৎ সঙ্গে পড়ে সহজে টাকা বানাতে খুঁজে নেন বিপজ্জনক অবৈধ পথ। সাদিয়াও তেমন 'শর্টকাট' বিপজ্জনক পথ খুঁজে পেয়েছিলেন নিউ মার্কেট এলাকায় পরিচয় হওয়া দুই নারীর সঙ্গে পরিচয়ের পর। ওই দুই নারীই জড়িত ছিল মাদক ব্যবসার সঙ্গে। তারা পরিচয়ের পর থেকেই সাদিয়ার সঙ্গে নিয়মিত ফোনে যোগাযোগ করতে শুরু করেন। মাদক ব্যবসায় নগদ টাকা, অল্প সময়ে বিত্তবান হওয়ার গল্প দুই মাদক কারবারীর কাছ থেকে প্রায়ই শুনতো সাদিয়া। একটা সময় ওই দুই মাদক কারবারী সাদিয়া ওরফে মায়াকে মাদক ব্যবসায় যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দেয় এবং মাদকের চালান পেতে সহযোগিতারও আশ্বাস দেয়। কাচা টাকার লোভ সামলাতে পারেননি সাদিয়া। একপর্যায়ে মাদক কারবারীর খাতায় নাম লেখান। সেই থেকে শুরু সাদিয়ার অন্ধকার জগতে পথচলা।

এক সময় পুলিশের খাতায় নাম ওঠে সাদিয়ার। মাদক ব্যবসা করতে গিয়ে মাঝে মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরাও পড়তে হয়েছে তাকে। জেলও খাটতে হয়েছে। তবে অধিকাংশ সময়ই আইনের ফাঁক গলে বেরিয়ে আসে সে। ফের একই কাজে নেমে পড়ে। দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় থেকে ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকের অন্যতম নেটওয়ার্ক হিসেবে কাজ করছিলেন সাদিয়া। সর্বশেষ আজ (১২ সেপ্টেম্বর, বুধবার) দুপুরে সহযোগীসহ ফের ধরা পড়েছে বাড্ডা এলাকার শীর্ষ এই মাদক সম্রাজ্ঞী।

র‌্যাব-৩ এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট আশিকুর রহমান বলেন, ‘বুধবার বাড্ডা এলাকার ১৩ নম্বর রোডের ‘সি’ ব্লকের একটি বাসা থেকে সাদিয়া ও তার সহযোগী মুহাম্মদ কাইয়ুম খানকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।’ 

‘গোপন সূত্রে র‌্যাব জানতে পারে, সাদিয়ার বাড্ডার বাসায় ইয়াবার বড় একটি চালান এসেছে। সেই সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। সাদিয়া দীর্ঘ দিন ধরে চট্টগ্রাম থেকে ইয়াবা এনে ব্যবসা করতো। বাড্ডা ও ভাটারা থানায় তার নামে মামলা রয়েছে। এর আগে জেলও খেটেছে সে। জেল থেকে বের হয়ে ফের একই পেশায় যুক্ত হয়েছে সে’- জানান র‌্যাব কর্মকর্তা আশিকুর রহমান।

র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, বেশ কয়েক বছর আগে কাইয়ুম ও সাদিয়ার পরিবার একই ভবনে ভাড়া থাকতো। সেই সুবাদে তাদের পরিচয়। তবে মাঝে কাইয়ুম লন্ডনে চলে যায়। বছর দুয়েক আগে সে দেশে ফেরে। দেশে আসার পর সাদিয়া কাইয়ুমকে মাদক ব্যবসায় যুক্ত করে। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা করে পুলিশে হস্তান্তর করা হবে।


অরিন▐ NEWS24


আবারও হেরে গেল ঢাকা!
'এসএসসি পরীক্ষা আমাদের জন্যও একটা পরীক্ষা'
এরশাদের সুস্থ অবস্থা এখন অনেকটা ভাল
নির্যাতিত গৃহবধূকে উদ্ধার করলেন ইউএনও!
গণধর্ষণের ঘটনায় তিন আসামির চারদিনের রিমান্ডে
মান্দায় বনগরু আটক করেছে গ্রামবাসী
পর্ণগ্রাফি ছবি দেখিয়ে শিশু ধর্ষণের চেষ্টা, গ্রেপ্তার ১
কিশোরগঞ্জ-১ আসনে নির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি
'ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি'
ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে চলছে যানবাহন!
সুনামগঞ্জ বিজিবি কর্তৃক মাদকদ্রব্য ধ্বংস!
'বিআরটিসিতে কার কত ইনকাম আমি ভালো করে জানি'
'বঙ্গবন্ধু সেতুর পাশে হবে নতুন রেলসেতু'
'সময় থাকতে জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিন' 
জাজিরা প্রান্তে যাচ্ছে পদ্মাসেতুর ষষ্ঠ স্প্যান!
'উন্নয়নশীল হয়েছি, উন্নত দেশের কাতারে যেতে হবে'
বাস-ট্যাংকার সংঘর্ষ, নিহত ২৬
জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ১৫ বাড়িতে অভিযান!
শেষ স্ট্যাটাসে ‘আমাকে যেন ভুলে না যাও...’
‘আমার সারাদেহ খেয়ো গো মাটি’
আবারও হেরে গেল ঢাকা!
'এসএসসি পরীক্ষা আমাদের জন্যও একটা পরীক্ষা'
আ.লীগের দু'গ্রুপের সংঘর্ষে, শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ১০
এরশাদের সুস্থ অবস্থা এখন অনেকটা ভাল
নির্যাতিত গৃহবধূকে উদ্ধার করলেন ইউএনও!
গণধর্ষণের ঘটনায় তিন আসামির চারদিনের রিমান্ডে
র‌্যাবের হাতে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যাবসায়ী আটক
মান্দায় বনগরু আটক করেছে গ্রামবাসী
পর্ণগ্রাফি ছবি দেখিয়ে শিশু ধর্ষণের চেষ্টা, গ্রেপ্তার ১
কিশোরগঞ্জ-১ আসনে নির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি
'ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন ২৮ ফেব্রুয়ারি'
ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে চলছে যানবাহন!
সুনামগঞ্জ বিজিবি কর্তৃক মাদকদ্রব্য ধ্বংস!
'বিআরটিসিতে কার কত ইনকাম আমি ভালো করে জানি'
'বঙ্গবন্ধু সেতুর পাশে হবে নতুন রেলসেতু'
সংরক্ষিত নারী আসন নিয়ে রিট!
সাবেক ইউপি সদস্যের লাশ উদ্ধার
টস জিতে ফিল্ডিং করছে রংপুর
'সময় থাকতে জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিন' 
ট্রাক ও লরির মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক নিহত
বিয়ে করলেন সঙ্গীতশিল্পী সালমা
মান্দায় বনগরু আটক করেছে গ্রামবাসী
‘গরীবের ডাক্তার’ ডা. রাকিবুল ইসলাম লিটু আর নেই
‘‌সৌদিতে সংস্কার না হলে বিপ্লব ঘটবে’
মায়ের লাশ বাইসাইকেলে বেঁধে একা ছেলে!
ছেলে সন্তানের মা হলেন টিউলিপ
অস্ত্র কারখানার সন্ধান, স্বামী-স্ত্রীসহ আটক ৩
বাসায় ফিরেছেন অভিনেত্রী অহনা
হুথিদের গুলিতে সৌদির ১৪ সেনা নিহত
ইরান-রাশিয়া-চীনকে নিয়ে উদ্বেগে ট্র্রাম্প
'বঙ্গবন্ধু সেতুর পাশে হবে নতুন রেলসেতু'
বন্ধ হলো শাহবাগ শিশুপার্ক
এমপি হতে চায় অপু বিশ্বাস!
ব্রেক্সিট ভোট দিয়েছেন অন্তঃসত্ত্বা টিউলিপ
এরশাদের অবর্তমানে কে পাচ্ছেন দলের দায়িত্ব!
টিআইবির অভিযোগ লজ্জাকর: নূরুল হুদা
স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে ধর্ষণ করল ৫ যুবক
‘আমি ধর্ষণ মামলার মূল আসামি’
সঙ্গীত শিল্পী আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল আর নেই!
শিক্ষিকার মাদক ব্যবসায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

সব খবর