সোমবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ | আপডেট ৩৯ মিনিট আগে

‘দেশকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে নিয়ে যাওয়াই সরকারের লক্ষ্য’

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘দেশকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে নিয়ে যাওয়াই সরকারের লক্ষ্য’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তার সরকার ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

তিনি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ‘বাংলাদেশ একটি ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত উদার গণতান্ত্রিক এবং ধর্ম নিরপেক্ষ দেশ হিসেবে রাষ্ট্র ও সমাজের প্রতিটি স্তরে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করবে, এদেশের গণতন্ত্র প্রাতিষ্ঠানিক রূপ লাভ করবে, যেখানে গণমানুষের অংশগ্রহণ নিশ্চিত হবে।’

প্রধানমন্ত্রী আজ (১২ সেপ্টেম্বর, বুধবার) সরকারি দলের সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘বাংলাদেশ ২০১৫ সালেই স্বল্প আয়ের দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উঠে এসেছে। এতেই প্রতীয়মান হয় যে, দেশ ধারাবাহিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে।’

আগামী ৩ বছরের মধ্যেই দেশ থেকে ক্ষুধা ও দারিদ্র্য দূর হবে উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, ‘২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ কেমন হবে- সে লক্ষ্যে দীর্ঘমেয়াদি প্রেক্ষিত পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কাজ এখনই শুরু করেছে সরকার।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে আগামী ২৩ বছরের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করা এবং ২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে শান্তিপূর্ণ, উন্নত-সমৃদ্ধ ও সুখী হিসেবে গড়ে তোলা।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন, তার সরকার আঞ্চলিক দেশগুলোর সঙ্গে সহযোগিতা সম্প্রসারিত করেছে এবং বিদেশি রাষ্ট্রের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ বৃদ্ধির মাধ্যমে সম্পর্ক উন্নয়নকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে।

তিনি বলেন, ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক আরো জোরদার করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী জানান, ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা প্রণয়নের মাধ্যমে ৭ দশমিক ৪ ভাগ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব হয়েছে, যা ২০২০ সাল নাগাদ ৮ ভাগে উন্নীত হবে এবং দারিদ্রের হার বর্তমান ২২ শতাংশ থেকে ১৮ দশমিক ৬ শতাংশে নেমে আসবে।

ডেল্টা প্লান-২১০০ বাস্তবায়ন সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কৃষি, মৎস্য, শিল্প কারখানা, বন, পানি ব্যবস্থাপনা, জনস্বাস্থ্য এবং পরিবেশের ক্ষেত্রে টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।’


অরিন▐ NEWS24

মন্তব্য