দেশে আজ গণতন্ত্র নেই: জিএম কাদের
দেশে আজ গণতন্ত্র নেই: জিএম কাদের

সংগৃহীত ছবি

দেশে আজ গণতন্ত্র নেই: জিএম কাদের

অনলাইন ডেস্ক

এই দেশকে এখন গণতান্ত্রিক দেশ বলা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের। তিনি বলেন,দেশে আজ সত্য কথা বলা যায় না, অনেকে গণতন্ত্রের কথা বলেন, অথচ দেশে আজ কোনো গণতন্ত্র নেই। দেশে এখন স্বৈরশাসন চলছে। আজ শনিবার দুপুরে কুমিল্লার টাউন হল মাঠে জাতীয় পাটির কুমিল্লা দক্ষিণ জেলার দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে এসব কথা বলেন জি এম কাদের।

তিনি বলেন, তারা (সরকার) মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে, অথচ মুক্তিযুদ্ধ যে কারণে হয়েছিল তা বাস্তবায়ন করছে না। সরকার যখন পক্ষ হয় তখন অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচন আর হয় না, বরং পক্ষপাতিত্ব হয়।

গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতি অত্যন্ত অনিশ্চয়তার মধ্যে আছে। সংবিধানের সুযোগ নিয়ে সরকার প্রশাসনসহ সকল প্রতিষ্ঠানকে দলীয়করণ করেছে।

সংবিধান সংশোধন করে সব কিছু নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে সরকার। নির্বাচন কমিশন, মানবাধিকার কমিশন এবং দুর্নীতি দমন কমিশন নিয়ন্ত্রণ করছে সরকার। সব কিছু কুক্ষিগত করছে সরকার। তাই সামনের নির্বাচন কেমন হবে তা অনুমান করা যায়। আমরা আবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের পক্ষে। সরকার চাইলে আমরা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ফর্মুলা দেবো। কিন্তু সরকার গায়ের জোরে সব কিছু করতে চাচ্ছে।  

জি এম কাদের বলেন, দেশের মানুষ একটি জ্বলন্ত আগ্নেয়গিরীর জ্বালামুখে আছে। যে কোন সময়ে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারে। আমরা চাই, খারাপ হলেও যেনো দেশের অবস্থা সব চেয়ে কম খারাপ হয়। দেশের অবস্থা যে খারাপ হবে তা মোটামুটি নিশ্চিত। বাংলাদেশ যে তথ্য দিচ্ছে তা আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো বিশ্বাস করছে না। সরকার বলছে, দেশে ৩১ বিলিয়ন রিজার্ভ আছে। কিন্তু আইএমএফ বলছে, এরমধ্যে ৮ বিলিয়ন ডলার সরকারের হাতে নেই। সরকার শ্রীলংকাকে ঋণ দিয়েছে, সে টাকা কী সরকার ফেরত পাবে? পায়রা বন্দরসহ বিভিন্ন খাতে খরচ করা হয়েছে। এগুলো কী সরকারের হাতে আছে? বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ও সংস্থা বাংলাদেশের হিসেব-নিকেশ গ্রহণ করে না। মুডিস নামে একটি সংস্থা বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থাকে ভয়াবহ বলে ঘোষণা করেছে। তাদের বক্তব্য বাংলাদেশকে ঋণ দিলে তা ফেরত দিতে পারবে না। আবার বিনিয়োগ করলেও তা হবে ভয়াবহ ঝুকিপূর্ণ। তারা বাংলাদেশকে ঝুকিপূর্ণ দেশ বলে ঘোষণা করেছে।  

সম্মেলনে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, কাদের ও ফখরুল বলেন খেলা হবে, কিসের খেলা? আপনারা দুর্নীতি, গণতন্ত্র নিয়ে খেলেছেন। এসব খেলা দেশের জনগণ আর চায় না, জনগণ শান্তি চায়। বিএনপি বা আওয়ামী লীগ ক্ষমতা আসুক মানুষ আর চায় না। মানুষ মুক্তি চায়।

তিনি আরও বলেন, দেশে জিনিসপত্রের দাম যেভাবে বাড়ছে, মানুষ কিছুদিন পর না খেয়ে মরবে। জাতীয় পার্টি যদি ক্ষমতায় আসতে পারে, তাহলে কুমিল্লা নামে বিভাগ ঘোষণা করা হবে। কুমিল্লাকে নিয়ে কোনো টালবাহানা চলবে না। গত ৩২ বছর দুইটি দল—জালিম সরকার এই দেশকে শেষ করে দিয়েছে। আমরা চার বার আওয়ামী লীগকে সহযোগিতা করছি। অথচ মানুষ আমাদের দালাল বলে ডাকে। এ সরকার শুধু বিদ্যুৎ খাতে ৯০ হাজার কোটি টাকা লুটপাট করছে।

সম্মেলনে এয়ার আহমেদ সেলিমকে সভাপতি ও ওবায়দুল কবির মোহনকে সাধারণ সম্পাদক করে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।
news24bd.tv/AA