শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ৩০ মিনিট আগে

রোবট তৈরি দেখল রংপুরের শিক্ষার্থীরা

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

 রোবট তৈরি দেখল রংপুরের শিক্ষার্থীরা

দেশের তরুণ ছাত্র-ছাত্রীদের রোবটিকস ও অ্যাডভান্সড টেকনোলজি সম্পর্কে অনুপ্রেরণা, উৎসাহ ও শিক্ষা দিতে গত শুক্রবার মিলিনিয়াম স্টার স্কুল এন্ড কলেজে সেমিনার ও কর্মশালা আয়োজন করা হয়।

জাপান বাংলাদেশ রোবটিকস এন্ড অ্যাডভান্সড টেকনোলজি এন্ড রিসার্চ সেন্টার এ কর্মশালার আয়োজন করে।

সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন রংপুর সিটি কর্পোরেশন মেয়র মোহাম্মদ মোস্তাফিজার রহমান। মিলিনিয়াম স্টার স্কুল এন্ড কলেজের পিন্সিপাল লে. কর্নেল সৈয়দ নাজমুল সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রফেসর মো. শামসুজ্জামান এবং প্রদীপ কুমার সরকার বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া উক্ত রিসার্চ সেন্টার থেকে উপস্থিত ছিলেন টেকনিক্যাল ডিরেক্টর ও কো-ফাউন্ডার আহসানুল আকিব, ডেপুটি টেকনিক্যাল ডিরেক্টর সাকিক মাহমুদ, অ্যাসিট্যান্ট টেকনিক্যাল ডিরেক্টর জুবায়ের হাসান মুন্না ও জায়েদুল ইসলাম রাহাত।

উক্ত প্রতিষ্ঠানের রংপুর প্রতিনিধি এইচ এম বাঁধন, No-Not Out, EEE brur অনুষ্ঠানটির সার্বিক পরিচালনায় সহয়োগীতা করেন।

অনুষ্ঠানে জাপান থেকে সংগঠনটি নিয়ে আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেন- প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ ফারহান ফেরদৌস।

তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠানটির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো দেশের প্রতন্ত অঞ্চলে রোবটিকস এবং আধুনিক টেকনোলজী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে পৌঁচ্ছে দেওয়া। সে জন্য তিনি সরকারি এবং বেসকারি সংস্থা ও উৎসাহিত ব্যক্তিদের সাহায্য কামনা করেন।

এছাড়াও তিনি রোবোটিকস ও কণরটোল ডাইনামিকের ওপর গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন।

প্রতিষ্ঠানটির আন্তর্জাতিক উপদেষ্টা ড. দেলোয়ার হোসেন, হোসেই বিশ্ববিদ্যালয়, টোকিও, জাপান থেকে বাস্তব জীবনে রোবটের ব্যবহারের ওপর বক্তব্য দেন।

রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে হলে রোবটিকস খাতে উন্নয়ণ করতে হবে এবং প্রযুক্তির সঠিক ব্যাবহার করতে হবে।

অনুষ্ঠানে প্রিন্সিপাল বলেন, সত্য মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে। দেশের উন্নতির পেছনে এই টেকনোলজির সঠিক ব্যাবহার করতে হবে।

অনুষ্ঠানটির দ্বিতীয় পর্যায়ে হিউম্যানয়েট রোবট, ড্রোন ও বিভিন্ন প্রজেক্ট প্রদর্শন করা হয়। টেকনিক্যাল ডিরেক্টর আহসানুল আকিবের নেতৃত্বে টেকনিক্যাল টিমের সদস্যরা হাতে কলমে রোবট তৈরি করা শেখান।

শেষে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও ড্রোন উড়ানো দেখানোর মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ করা হয়।

(নিউজ টোয়েন্টিফোর/তৌহিদ)

মন্তব্য