বাংলাদেশ-কোরিয়া কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র পরিদর্শনে এডিবি প্রেসিডেন্ট

বাংলাদেশ-কোরিয়া কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র পরিদর্শনে এডিবি প্রেসিডেন্ট

অনলাইন ডেস্ক

এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি) প্রেসিডেন্ট মাসাতসুগু আসাকাওয়া বৃহস্পতিবার ১৬ মার্চ স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (সেইপ) প্রশিক্ষণ কেন্দ্র বাংলাদেশ-কোরিয়া টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (বিকে-টিটিসি) পরিদর্শন করেছেন। এসময় এডিবির দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের মহাপরিচালকসহ একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল তার সঙ্গে ছিলেন।

পরিদর্শনকালে প্রতিনিধি দল জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি), বিকে-টিটিসি, এসইআইপি এবং সংশ্লিষ্ট সরকারি প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করেন। সেইপ প্রকল্পের জাতীয় প্রকল্প পরিচালক (এনপিডি) এবং অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন শিল্প-চাহিদা-চালিত দক্ষতা প্রশিক্ষণ প্রদানে সেইপ প্রকল্পের সফল বাস্তবায়নের কথা তুলে ধরেন।

তিনি উল্লেখ করেন, সেইপ দক্ষতা উন্নয়ন ইকোসিস্টেমে সম্পূর্ণ সংস্কার এনেছে।

ফাতিমা ইয়াসমিন জানান, প্রশিক্ষণ কোর্সগুলি শিল্পের প্রয়োজনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। তাছাড়া প্রশিক্ষণ শেষে সেইপ গ্র্যাজুয়েটদের চাকরির ব্যবস্থা করা হয় বলেও জানান তিনি। অর্থসচিব বাংলাদেশে দক্ষতা উন্নয়নে সহায়তা প্রদানের জন্য এডিবির প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

সেইপ প্রকল্পের নির্বাহী প্রকল্প পরিচালক ফাতেমা রহিম বীনা, প্রকল্পটির অর্জন, কৃতিত্ব এবং বৈশিষ্ট উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, সরকারি, বেসরকারি এবং এনজিওগুলির সঙ্গে যৌথ অংশীদারিত্বের মাধ্যমে ৮ লাখ ৪১ হাজার ব্যক্তিকে প্রশিক্ষণ দেয়ার লক্ষ্য নেওয়া হয়, যার মধ্যে প্রশিক্ষণের জন্য তালিকাভুক্তি হয়েছে ৭৯.৬৪ শতাংশ, চাকুরি পেয়েছে ৭০.২৪ শতাংশ এবং গোটা কর্মসূচিতে মহিলাদের অংশগ্রহণ ৩১.৩১ শতাংশ।

তিনি সামাজিকভাবে পিছিয়ে পড়া গোষ্ঠি, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি এবং ট্রান্সজেন্ডার ব্যক্তিদের জন্য বিশেষ কর্মসূচির কথাও উল্লেখ করেন।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. আহমেদ মুনিরুস সালেহীন, বৈদেশিক বাজারে কর্মসংস্থানের জন্য আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে দক্ষতা প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বিএমইটি’র অধীনে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলিকে সমর্থন করার জন্য সেইপ প্রকল্পের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এডিবি সভাপতি মাসাতসুগু আসাকাওয়া বলেছেন, দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির জন্য দক্ষতা প্রশিক্ষণের বিকাশ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার আলোচনার কথা স্মরণ করেন করে বলেন, বাংলাদেশে মানবসম্পদ উন্নয়নে বিনিয়োগের গুরুত্বের ওপরও জোর দিয়েছেন। তিনি বলেন, এডিবি স্থিতিশীল, টেকসই এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে বাংলাদেশকে সহায়তা করতে প্রস্তুত রয়েছে।

বৈঠকের পর, বিকে-টিটিসি’র অধ্যক্ষ তার প্রতিষ্ঠানে সেইপ প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের বিস্তারিত তুলে ধরেন। এডিবি প্রেসিডেন্ট প্রশিক্ষণ কর্মশালা পরিদর্শন করেন এবং প্রশিক্ষণার্থীদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় তিনি সেইপের অর্থায়নে বিকেটিটিসি’র প্রশিক্ষণ কার্যক্রম দেখে গভীর সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

news24bd.tv/তৌহিদ

পাঠকপ্রিয়