জিনিসপত্রের দাম কমাতে সরকারের চেষ্টার কমতি নেই: ওবায়দুল কাদের 

সংগৃহীত ছবি

জিনিসপত্রের দাম কমাতে সরকারের চেষ্টার কমতি নেই: ওবায়দুল কাদের 

নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বৈশ্বিক কারণে দেশে জিনিসপত্রের দাম বেড়েছে। এতে সাধারণ মানুষের কষ্ট বেড়েছে এটা অস্বীকার করার কিছু নেই। তবে পৃথিবীর অনেক দেশ থেকে বাংলাদেশ এখনো ভালো আছে। সরকার আন্তরিক চেষ্টা করছে জিনিসপত্রের দাম কমানোর জন্য।

সরকারের সততা এবং চেষ্টার কমতি নেই। বুধবার (২৯ মার্চ) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।  

বিএনপির নির্বাচনে আসার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নির্বাচনে আসলো কী আসলো না এ নিয়ে চিন্তিত নয় সরকার। তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে তাদের এসব প্যানপ্যানানি নিয়ে সরকার ভাবছে না।

বিএনপি যত আন্দোলন করেছে, সেখানে মানুষের অংশগ্রহণ ছিল না। জনগণের অংশগ্রহণ থাকলে সেটা গণঅভ্যুত্থান হতো। কিন্তু একটা গণআন্দোলনও হয়নি।

বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রসহ ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো চায় আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু এবং অংশগ্রহণমূলক হোক। এটা যে সরকারও চায় সে বিষয়ে  বিভিন্ন বিদেশি রাষ্ট্রকে বলা হয়েছে। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে এ নিয়ে কথা হয়েছে। তবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারে ফিরে যাওয়া আর সম্ভব নয়, এটা সবাইকে বলা হয়েছে।  

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, নির্বাচনের ফলাফলের গেজেট প্রকাশের পর অনিয়মের অভিযোগে কমিশন নির্বাচন বাতিল করতে পারবে—কমিশনের এমন প্রস্তাবের বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত হবে। মন্ত্রিসভায় নীতিগত অনুমোদনের পর সেটা যাচাই বাছাই করে চূড়ান্ত অনুমোদনের পর আবার মন্ত্রিসভায় আসবে।

সাংবাদিকতার ভূমিকা নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, শুধু অ্যাক্সিডেন্টের ওপর নির্ভর করে একটি মন্ত্রণালয়ের ব্যর্থতা নিয়ে নিউজ ছাপানোটা গণমাধ্যমের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যের মধ্যে পড়ে। এটা হলুদ সাংবাদিকতা। এই মন্ত্রণালয়ের অনেক সফলতাও আছে। সেগুলো না বলে শুধু ব্যর্থতা বলাটা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

news24bd.tv/আইএএম

পাঠকপ্রিয়