বান্ধবীর মৃত্যু শোক সইতে না পেরে বন্ধুর আত্মহত্যা

ফাইল ছবি

বান্ধবীর মৃত্যু শোক সইতে না পেরে বন্ধুর আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

সড়ক দুর্ঘটনায় বান্ধবীর মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলো যুবক। ঈদের আগের দিন রাজধানীর মতিঝিলে ট্রাকের ধাক্কায় নিহত হন মোটরসাইকেলে থাকা নওশিন। এই দুর্ঘটনায় আহত হন বাইক চালক রাহাত হোসেন আরিফ। আর ঈদের পরেরদিন রোববার (২৩ এপ্রিল) আরিফের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহত বান্ধবীর মৃত্যুশোক সইতে না পেরে আরিফ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তার বয়স ২৫ বছর। আরিফ হাবিবুল্লাহ বাহার কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন। তার বাবার নাম মো. আমির হোসেন, মা শাহিনুর বেগম।

ঘটনায় বিষয়ে খিলগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক আলমগীর হোসেন বলেন, রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে খিলগাঁও দক্ষিণ গোড়ানের বাসা থেকে আরিফের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেলে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাসায় যান রাহাত হোসেন আরিফ। তার ডান হাতে ব্যান্ডেজ ছিল। ওই ব্যান্ডেজ খুলে জানালার সাথে পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে মারা যান তিনি।

গত শুক্রবার রাত ৯টার দিকে মতিঝিলে ট্রাকের ধাক্কায় নিহত হন মোটরসাইকেল আরোহী নওশিন। দুজনে ওয়ারী যাওয়ার সময় মেয়র হানিফ উড়াল সড়কের কাছে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয় একটি ট্রাক। দুজনেই সড়কে ছিটকে পড়েন। নওশিনকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পর মৃত ঘোষণা করেন ডাক্তার।