ইহুদি ও খ্রিষ্টানদের ধর্মগ্রন্থ পোড়ানোর অনুমতি দিলো সুইডেন

সংগৃহীত ছবি

ইহুদি ও খ্রিষ্টানদের ধর্মগ্রন্থ পোড়ানোর অনুমতি দিলো সুইডেন

অনলাইন ডেস্ক

তাওরাত ও বাইবেল পোড়ানোর অনুমতি দিয়ে ফের আলোচনায় ইউরোপের দেশ সুইডেন। কিছুদিন আগেই দেশটিতে পবিত্র কোরান শরীফ পোড়ানো হয়। সেই ঘটনা নিয়ে তোলপাড় পরে যায় সারাবিশ্বে। এবার দেশটির পুলিশ ইহুদিদের ধর্মগ্রন্থ তাওরাত ও খ্রিস্টানদের বাইবেল পোড়ানোর অনুমতি দিয়েছে।

 

এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন সুইডেনে অবস্থিত ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা সিএনএন।

জানা যায়, সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে অবস্থিত ইসরায়েলি দূতাবাসের বাইরে প্রতিবাদ সমাবেশ করার আবেদন করেন এক ব্যক্তি। সেখানে তাওরাত ও বাইবেল পোড়ানোর জন্য অনুমতিও চাওয়া হয়।

শনিবার (১৫ জুলাই) ওই ব্যক্তির তাওরাত ও বাইবেল পোড়ানোর কথা রয়েছে।

এ ঘটনায় সুইডেনে অবস্থানরত ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত এক টুইটার বার্তায় জানান, আবারও ধর্মগ্রন্থ পোড়ানোর খবরে তিনি ভীত এবং আতঙ্কিত। বলেন, এটি পরিষ্কারভাবে ঘৃণা ছড়াবে। টুইটার বার্তায় এটি বন্ধের দাবিও জানান ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত।

এদিকে এই বিক্ষোভ বন্ধ করতে সুইডিশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইসরাইলি সরকার। বিভিন্ন ইহুদি সংগঠনও এমন সিদ্ধান্তের নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

সম্প্রতি সুইডেনের স্টকহোমের একটি মসজিদের সামনে মুসলিমদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআন পোড়ানোর অনুমতি দেয় দেশটির পুলিশ। কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে এক অভিবাসী যুবক কোরআন পোড়ায়।

ওই ঘটনার পাল্টা হিসেবে তাওরাত ও বাইবেল পোড়ানোর কর্মসূচি দেয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে কে বা কারা এই কর্মসূচির ডাক দিয়েছে তাদের সম্পর্কে কিছু জানানো হয়নি।