ঝালকাঠিতে দুর্ঘটনা: সেই বাসচালক আশুলিয়ায় গ্রেপ্তার 

ঝালকাঠিতে দুর্ঘটনা: সেই বাসচালক আশুলিয়ায় গ্রেপ্তার 

ঝালকাঠি প্রতিনিধি:

ঝালকাঠি সদর উপজেলায় ‘বাশার স্মৃতি’ নামের যাত্রীবাহী বাস উল্টে পুকুরে পড়ে ১৭ জন নিহতের ঘটনায় বাসচালক মোহন খানকে গ্রেপ্তার করেছে বাসের চালক।

রাজধানী আশুলিয়া থেকে মঙ্গলবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। র‌্যাব সদর দপ্তরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত সোমবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর একটি দল রাজাপুর থেকে বাসের সুপারভাইজার মিজান ওরফে ফয়সালকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃত মিজান নলছিটি উপজেলার পূর্ব রায়াপুর (বটতলা) গ্রামের মৃত নুরুল ইসলাম হাওলাদারের ছেলে।

ওইদিন রাতে তাকে ঝালকাঠি সদর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তবে এখনও ঘাতক বাসের চালকের সহকারী (হেলপার) আকাশ ওরফে বুলেট (১৮)-কে গ্রেপ্তার করা যায়নি।  

গত ২২ জুলাই বরিশাল-খুলনা মহাসড়কে উপজেলার ছত্রকান্দা এলাকায় বাসার স্মৃতি নামের যাত্রীবাহী বাসটি সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উল্টে পুকুরে পড়ে যায়।

এটি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া থেকে ঝালকাঠি যাচ্ছিল। এতে ১৭ জন যাত্রী নিহত ও ৩৫ যাত্রী আহত হন।

এদিকে বাস দুর্ঘটনার দুইদিন পর ঝালকাঠি থানার এসআই সুশংকর মল্লিক বাদী হয়ে সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর ৯৮ ও ১০৫ ধারায় রোববার দিবাগত রাতে একটি মামলা দায়ের করেন।  

মামলায় বাসচালক মোহন খান (৪০), সুপারভাইজার মো. ফয়সাল ওরফে মিজান (৩২) ও হেলপার আকাশ ওরফে বুলেটকে (১৮) আসামি করা হয়। এরপর থেকেই আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে ছায়া তদন্ত শুরু করে র‌্যাব।