আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রেখে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়: চরমোনাই পীর

আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রেখে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়: চরমোনাই পীর

অনলাইন ডেস্ক

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকতে কোনো নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হওয়া সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই।

তিনি বলেছেন, সরকারি দল ছাড়া সকল বিরোধী দল অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়। কিন্তু আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকতে কোনো নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হওয়া সম্ভব নয়। আওয়ামী লীগ জনগণকে ধোঁকা দিয়ে বোকা বানাতে অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আয়োজন করতে সক্ষমতার যে কথা বলছেন তা অবাস্তব।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে পুরানা পল্টনে ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশের ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রশাসনে যারা দায়িত্ব পালন করছেন তারা আমাদের ভাই। আপনারা দায়িত্ব পালনে কিছুটা নিরপেক্ষতা হারিয়ে ফেলেছেন। হাতে হাতুড়ি নিয়ে যে আচরণ করেছেন তাতে কলঙ্কজনক অধ্যায় রচিত হয়েছে।

জালেমদের বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন করতে হবে জানিয়ে চরমোনাই পীর বলেন,  ন্যায্য দাবি নিয়ে আন্দোলন করতে গিয়ে যারা মামলার স্বীকার হয়ে কারাবন্দি হয়েছেন তাদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়া ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে তিনি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর বলেন, স্বাধীনতার মূলনীতি ছিল সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার। স্বাধীনতার ৫২ বছরে এর একটিও বাস্তবায়ন হয়েছে বলে দেশবাসী দেখেনি।

দেশের আবহাওয়া বর্তমানে দূষিত হয়ে গেছে। এই দূষিত আবহাওয়া আমাদের পরিচ্ছন্ন করতে হবে।
পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার বাবা, মা, ভাই হারানোর বিষয়ে কান্না করেন। কিন্তু হাফেজ রেজাউল করীমের বিষয়ে তার পদক্ষেপ কি? দেশবাসী তা জানতে চায়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মুহাম্মদ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী বলেন, শেখ হাসিনা যদি ২০২৪ এ ক্ষমতায় আসতে পারে তবে দেশের অবস্থা কি হবে তা বলা মুশকিল।

তিনি বলেন, আমরা চাই দেশে শেখ হাসিনার অপশাসন বন্ধ হোক। দুর্নীতি দেশ থেকে উঠে যাক। ২০১৪ তে আমরা নির্বাচন করিনি। ২০১৮ তে দেশবাসীকে ধোঁকা দিয়া বোকা বানানে হয়েছে।

মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী বলেন, এই স্বৈরাচারী আওয়ামী লীগ সরকারকে দেশবাসী আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না। তাদের আর ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হবে না। যেভাবে শত্রু আসবে সেভাবে মোকাবেলা করতে হবে।  

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, ইসলামের জন্য যারা রাজনীতি করে তাদের দেখে এক শ্রেণির মানুষ বিরক্ত হয়। যারা বিরক্ত হয় তারা হলো-ঘুষখোর, চোর, ডাকাত, দুর্নীতিবাজ, টেন্ডারবাজ।

তিনি বলেন, ৫২ বছরে দেশে চোর ডাকাত ও দুর্নীতিবাজদের অনেক উন্নয়ন হয়েছে। অতীত বর্তমানে প্রত্যেক সরকারের সময়ে অনেক নাটক দেখেছি। আর কোনো নাটক দেখতে চাই না। এসব নাটক বন্ধে ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশকে তিনি সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন বলেন, পীর সাহেব চরমোনাই রহ. বলেছেন শিক্ষা নয় সুশিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড। সাবেক রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সাহেব আমাদের সাথে আলোচনায় বলেছেন প্রতিবছর দেশে যে দুর্নীতি হয় তা দিয়ে বছরে ২টি পদ্মা সেতু করা যায়।

সভাপতির বক্তব্যে ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সভাপতি শরিফুল ইসলাম রিয়াদ বলেন, ইসলামকে বিজয়ী করতে আগামীর সকল লড়াই সংগ্রামে ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশ মাঠে থাকতে হবে, ইনশাআল্লাহ। শহীদ হাফেজ রেজাউল করীম হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে আগামী ৪ আগস্ট জেলায় জেলায় বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

এই রকম আরও টপিক

পাঠকপ্রিয়